অনলাইন প্রতিবাদে উত্তাপ বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা

বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের করোনাকালীন সেমিষ্টার ফি ও বেতন বাতিল, অনলাইন ক্লাস ও পরীক্ষা বন্ধ এবং শিক্ষক-কর্মচরীদের বেতন ভাতা নিশ্চিত করার দাবিতে সিলেটে অনলাইন প্রতিবাদ কর্মসূচি পালন।

আজ বুধবার (০৬ মে) প্রাইভেট ইউনিভার্সিটি স্টুডেন্ট ইউনিটি সিলেট-এর উদ্যোগে এই অনলাইন প্রতিবাদ কর্মসূচি পালন করা হয়।

প্রাইভেট ইউনিভার্সিটি স্টুডেন্ট ইউনিটির সংগঠক নিশাত কর সানী, বিপ্লব দেব, জমাদার শাকের বুশরা সুহেলি, শাওন দাস, সায়েদুল হক রোমো সহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা এতে অংশগ্রহণ করে।

এসময় তারা উল্লেখ করেন “করোনা মহামারীর কারনে উদ্ভুত পরিস্থিতিতে বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর কর্তৃপক্ষকে ইউজিসির কতৃক অনলাইনে ক্লাস, পরীক্ষা ও অনলাইনে ও অনুমতি দেয়া খুবই বেদনাদায়ক, অকার্যকর ও শিক্ষার্থীদের জন্যে বিব্রতকর সিদ্ধান্ত। বর্তমানে অধিকাংশ মধ্যবিত্ত পরিবারের উপার্জন থমকে আছে। প্রবাসীদের কোনো আয় নেই, ব্যাবসায়ী আর বেসরকারী চাকুরীজিবিদের অবস্থাও করুন, যারা ক্ষুদ্র ব্যাবসায়ী তারা অনেকেই মুলধন নিয়ে সঙ্কটে। এই অবস্থায় নিন্ম মধ্যবিত্ত আর মধ্যবিত্তরা অনেকেই যেখানে খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করা নিয়ে শঙ্কায় রয়েছে সেখানে সন্তানের মোটা অংকের সেমিস্টার ফি ও বেতন দেয়া মোটামুটি অসম্ভবই অভিভাবকদের পক্ষে। তাছাড়া অনেক শিক্ষার্থী টিউশন করে, পার্টটাইম চাকুরী করে, কিংবা ক্ষুদ্র ব্যাবসার আয় দিয়ে থেকে থাকা খাওয়া ও টিউশন ফির খরচ চালায়। তারা বর্তমানে সম্পূর্ণ বেকার এবং বাসা ভাড়া ও খাওয়ার খরচ চালানোই তাদের মাথায় বিরাট বোঝা। এমন পরিস্থিতিতে তাদের পক্ষে টিউশন ফি পরিশোধ করা একদমই অসম্ভব।

অন্যদিকে দূর্বল নেটওয়ার্ক, বেশিরভাগ শিক্ষার্থী গ্রামে অবস্থান করা এবং প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতি ইত্যাদির কারনে অনলাইন ক্লাস ও পরিক্ষায় অংশ নেয়া শুধু অসম্ভবই নয় অবস্থাও বটে। আবার সেমিস্টার ফি বন্ধ এ অজুহাতে শিক্ষক- কর্মকর্তা-কর্মচারিদের বেতন বন্ধ করা হচ্ছে। যা কোন ভাবেই যৌক্তিক নয়।