বুধবার, ২৮ অক্টোবর ২০২০, ১২:০০ অপরাহ্ন

ঈদে নজর কেড়েছে গল্পনির্ভর নাটক

প্রতিবেদকের নাম / ২৩ শেয়ার
প্রকাশিত : শুক্রবার, ৭ আগস্ট, ২০২০, ৬:১৭ অপরাহ্ণ

0Shares

করোনার কারণে এবারের ঈদে অন্য সময়ের মতো চার-পাঁচশো নাটক তৈরি না হলেও দেড়শর মতো নতুন নাটক প্রচারিত হয়েছে। দুই ডজন নন-ফিকশন অনুষ্ঠানও ছিল ঈদ আয়োজনে। কিন্তু সব নাটক বা অনুষ্ঠান দর্শকের সমান সাড়া পায় না। ঈদের সাত দিনের আয়োজন শেষে বোঝা যাচ্ছে, এ ঈদের সেরা কাজ কোনগুলো।

নাটকের মধ্যে ইউটিউব ভিউয়ে অপূর্ব, তাহসান, মেহজাবিন, তিশা এগিয়ে থাকলেও প্রশংসিত নাটকের তালিকায় তাদের কম নাটকই আছে। সবচেয়ে বেশি ইউটিউব ভিউয়ের নাটক মিজানুর রহমান আরিয়ানের ‘প্রাণপ্রিয়’ (অপূর্ব ওমেহজাবিন চৌধুরী), কাজল আরেফিন অমির ‘সিঙ্গেল’ (তাহসান খান, শায়লা সাবি), মাবরুর রশীদ বান্নাহর ‘অ্যা বিটার লাভ স্টোরি’ (তাহসান খান, সাফা কবির)। এগুলো প্রতিটি এক মিলিয়নের বেশি ভিউ হয়েছে। এবার ভিন্নধর্মী চরিত্র করে প্রশংসা এবং দর্শক সাড়া দুই-ই মিলেছে আফরান নিশোর ভাগ্যে। মেধাবী অভিনেত্রী অপি করিম ও রোমানা রশিদ ঈশিতার প্রশংসায় পঞ্চমুখ সবাই। নতুনদের মধ্যে ইয়াশরোহান, ইরফান সাজ্জাদ, সাফা কবির, সাবিলা নূরের কাজ প্রশংসিত হয়েছে। এবার গল্পনির্ভর নাটকেই আগ্রহ বেশি। দর্শক সাধারণত এ ধরনের নাটক থেকে মুখ ফিরিয়ে রাখলেও এবার চিত্র একটু ভিন্ন। গৎবাঁধা রোমান্টিক ও কমেডি নাটকের ভিউ হয়তো মিলিয়ন ছাড়িয়েছে, কিন্তু ভালো গল্পের বৈচিত্র্যময় চরিত্রের নাটকও দেখেছে দর্শক।সেগুলোর পাঁচ-সাত লাখ ভিউ হয়েছে ইউটিউবে।
বিষয়টি নিয়ে বেশ খুশি শোবিজ অঙ্গনের মানুষরা। অনেকেই বলেছেন, নাটকের সোনালি অতীতে যেমন রুচিশীল গল্পই সাড়া জাগাত, তেমনি ধীরে ধীরে হয়তো ভালো নাটকেরই জয় হবে সর্বস্তরে। এ ঈদে সর্বাধিক প্রশংসিত নাটকের মধ্যে রয়েছে আশফাক নিপুণের পরিচালনায় লাইভ টেকনোলজির দুই নাটক ‘ভিকটিম’ (অপি করিম, আফরান নিশো, সাফা কবির) ও ‘ইতি, মা’ (ঈশিতা, আফরান নিশো, আবীর মির্জা, শিল্পীসরকার অপু), মাহমুদুর রহমান হিমির ‘কেন?’ (ঈশিতা, আফরান নিশো, মেহজাবিন, তৌসিফ মাহবুব), শাফায়েত মনসুর রানার ‘মশাল’ (ইয়াশ রোহান, মাসুম বাশার), ‘প্রেসার কুকার’ (ইরফান সাজ্জাদ, অপর্ণা ঘোষ) ও ‘দ্য লাস্ট অর্ডার’ (অ্যালেন শুভ্র, লুৎফর রহমান জর্জ), প্রীতি দত্তের ‘মানুষের গল্প’ (ইরফান সাজ্জাদ), মিজানুর রহমান আরিয়ানের ‘শহর ছেড়ে পরানপুর’ (নুসরাত ইমরোজ তিশা, ইয়াশ রোহান), অনিমেষ আইচের ‘টু লেট’ (আশনা হাবিব ভাবনা), কলকাতার আড্ডা টাইমসে প্রকাশিত ‘হাইজি¦ন’ (ইরফান সাজ্জাদ), সঞ্চয় সমদ্দরের ‘অপরূপা’ (অপূর্ব ও মেহজাবিন), রাফাত মজুমদার রিংকুর ‘বোধ’ (মোশাররফ করিম, রুনা খান, আশীষখন্দকার, তাসনুভা তিশা), সাত পর্বের ধারাবাহিক ‘গিরগিটি’ (মোশাররফ করিম, রোবেনা রেজা জুঁই)।

ঈদের পছন্দের কাজ সম্পর্কে জনপ্রিয় অভিনেতা ও নির্মাতা তৌকীর আহমেদ বলেন, ‘আমি বেশকিছু কাজ দেখেছি। এবারের কাজ বেশ ভালো হয়েছে। আমি ইউটিউব ভিউ দেখে কোনোদিন নাটক দেখি না। মূলত যে নাটকগুলো দেখি তা কেউ না কেউ দেখার জন্য বলে। এজন্যভালো মানের কাজই দেখা হয়। আমার কাছে আশফাক নিপুণের “ভিকটিম” নাটকটি খুব ভালো লেগেছে। সে কথা তাকে ফোন করে জানিয়েছি। আমি সবসময় চেষ্টা করি, যারা ভালো কাজ করেন তাদের অ্যাপ্রিশিয়েট করতে। তাহলে তারা আরও বেশি উৎসাহ পায় ভালো কাজ করতে। ’ জনপ্রিয় অভিনেত্রী জাকিয়া বারী মম বলেন, ‘আমার খুব বেশি কাজ দেখা হয়নি। যা দেখেছি তার মধ্যে সবচেয়ে বেশি ভালো লেগেছে আশফাক নিপুণের “ভিকটিম ”টেলিছবিটি। একেবারেই এ সময়ের গল্প বলেছেন তিনি। শিল্পীরাও দুর্দান্ত কাজ করেছেন। যৌন হেনস্তার বিষয়টি নিয়ে আরও কাজ হওয়া উচিত। ’

এ সময়ে ছোট পর্দার অন্যতম ব্যস্ত অভিনেত্রী মেহজাবিন। তিনি বলেন, ‘নিজের কাজই বেশি দেখা হয়েছে। কোন কাজটি দর্শক পছন্দ করছে তা জানার জন্যই কাজগুলো দেখেছি। এতে ভবিষ্যতে গল্প নির্বাচনে সুবিধা হয়। আমি তো দর্শকের জন্যই কাজ করি। তাই তারা কী পছন্দ করছে তা জানা আমার জন্য খুব গুরুত্বপূর্ণ। সেদিক থেকে “প্রাণপ্রিয়” নাটকটির সাড়াসবচেয়ে ভালো। “অপরূপা” নাটকের চরিত্রটিও আমার প্রিয়। এতে আমার মুখ এসিডদগ্ধ। হিমির “কেন?” টেলিছবিটির জন্য সবচেয়ে বেশি প্রশংসা পাচ্ছি। অনেক কলিগ আমাকে ফোনে তাদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। ঈশিতা আপু, নিশো, তৌসিফও খুব ভালো অভিনয় করেছেন। অন্যদের কাজের মধ্যে “ভিকটিম” আমার খুব ভালো লেগেছে। অপি করিম, নিশো, সাফা দুর্দান্ত কাজ করেছেন। ’অভিনেত্রী রুনা খান বলেন, ‘আমি এখন ঢাকার বাইরে। তাই খুব বেশি কাজ দেখিনি। ইউটিউবে কিছু কাজ দেখেছি। আমার অভিনীত “বোধ” নাটকটির জন্য বেশ ভালো সাড়া পাচ্ছি। এটি সিরিয়াস গল্পের নাটক। রিংকু ভালো নির্মাণ করেছেন। কাজ করার সময়েই মনে হচ্ছিল ভালো কিছু হবে। আমি পেশাদার অভিনেতা। সবার সঙ্গে সব ধরনের কাজ করতে হয়। কিন্তু মোশাররফ করিমের সঙ্গে সিরিয়াস গল্পের নাটক করতেই বেশি ভালোলাগে। তার সঙ্গে জনপ্রিয় হাসির নাটক “যমজ”-এ কাজ করেছি। কিন্তু “বোধ”,সিরিয়াস গল্পে তার জুড়ি নেই। অন্যদের কাজের মধ্যে আশফাক নিপুণের দুটি কাজ খুব ভালো লেগেছে। “ভিকটিম” ও “ইতি, মা” টেলিছবি দুটিতে অপি ও ঈশিতা আপু দুর্দান্ত। ’

নির্মাতা দীপংকর দীপন বলেন, ‘এবার ঈদের যে কাজগুলো দেখেছি তার মধ্যে “ভিকটিম” আমার সবচেয়ে ভালো লেগেছে। আমি এ নিয়ে ফেইসবুকে একটি স্ট্যাটাসও দিয়েছি। মনে হয়েছে নতুন ধারার গল্প বলার সূচনা হয়েছে টেলিছবিটির মাধ্যমে।
সূত্র : দেশ রুপান্তর

0Shares


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

এ সম্পর্কিত আরো সংবাদ

Categories

এক ক্লিকে বিভাগের খবর