Categories
অর্থ ও বিনিয়োগ সারা দেশ

সরকারি ফি ৫০ টাকা, নেয়া হয় ২০০ টাকা!

সরকারি নিয়মানুযায়ী শিশুর জন্ম থেকে ৪৫ দিন পর্যন্ত জন্ম নিবন্ধন ফ্রি। ৫ বছর পর্যন্ত ২৫ টাকা ও ৫ বছরের উপরে সব বয়সীদের ৫০ টাকা ফি নেয়ার নিয়ম থাকলেও উল্টো নিয়মে চলছে উপজেলার সোনাকাটা ইউনিয়ন পরিষদ সচিব আক্তারুজ্জামানের আইন। প্রতি জন্ম সনদে ১৫০ থেকে ২০০ টাকা পর্যন্ত ফি আদায় করছেন বলে অভিযোগ করছেন ভুক্তভোগীরা।

বরগুনার তালতলী উপজেলার সোনাকাটা ইউনিয়নে জন্মসনদের অতিরিক্ত ফি নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে স্থানীয় ইউনিয়ন সচিবের বিরুদ্ধে। শনিবার দুপুরে সাংবাদিকদের কাছে এমন অভিযোগ করেন ভুক্তভোগী পরিবারগুলো।

ইউনিয়নের কবিরাজপাড়া গ্রামের মো. আব্বাস উদ্দিন ও মো. আফজাল হোসাইন বলেন, ২ বছরের শিশুর ২০০ টাকা কমে জন্ম সনদ দেওয়া যাবে না বলে জানান ইউপি সচিব। তাই বাধ্য হয়ে ২০০ টাকা দিয়ে জন্মসনদ নিয়েছি।

তবে ইউনিয়নে এ অভিযোগ নতুন নয়। সরকারি নিয়ম উপেক্ষা করে ইউপি সচিব আক্তারুজ্জামান জন্মনিবন্ধন সনদে অতিরিক্ত ফি আদায় করেন বলে অনেকেই অভিযোগ করেছেন। এটা দেখারও কেউ নেই বলে জানান স্থানীয়রা।

এ বিষয় অভিযুক্ত ইউপি সচিব এর সঙ্গে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, জেলা প্রশাসকের অনুমতি সাপেক্ষে তিনি অতিরিক্ত জন্মনিবন্ধন ফি আদায় করছেন বলে স্বীকার করেন। সংশ্লিষ্ট ইউপি চেয়ারম্যান মো. সুলতান ফারাজী বলেন, এ বিষয়টি দেখে দ্রুত সমাধানের ব্যবস্থা করা হবে।

বরগুনা জেলা প্রশাসক মো. মোস্তাইন বিল্লাহ বাংলা’কে বলেন, ‘অবৈধভাবে টাকা আদায়ের অনুমতি দেয়ার প্রশ্নই ওঠে না। এমন কিছু সে করে থাকলে তাকেই এর দায়ভার বহন করতে হবে। এ নিয়ে খোঁজখবর আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। সূত্র : বাংলা

Categories
অর্থ ও বিনিয়োগ সারা দেশ

রিফাত হত্যা : খুনি নয়নের সাথে মিন্নির বিয়ে প্রকাশ্যে

বরগুনা প্রতিনিধি:

বরগুনায় প্রকাশ্য দিবালোকে রাস্তার ওপর স্ত্রীর সামনে স্বামীকে নির্মমভাবে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় নিহত রিফাত শরীফের স্ত্রী মিন্নির সঙ্গে প্রধান আসামী সাব্বির হোসেন নয়ন ওরফে নয়ন বন্ডের বিয়ে হয়েছিল।রিফাত শরীফ হত্যাকাণ্ড নিয়ে একের পর এক বেরিয়ে আসছে চাঞ্চল্যকর সব তথ্য। রিফাতের পারিবারিক কয়েকটি সূত্র বলছে রিফাতের স্ত্রী মিন্নিই এই হত্যাকাণ্ডের মূল পরিকল্পনাকারীী।


তাদের বিয়ের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কাজী মো. আনিসুর রহমান ভূঁইয়া।তিনি বরগুনা পৌরসভার ৪, ৫ ও ৬ নং ওয়ার্ডের নিকাহ রেজিস্টার। বরগুনা পৌরসভার ডিকেপি রোডের কেজি স্কুল নামক স্ট্যান্ডে তার অফিস।
নয়ন বন্ড ও আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নির বিয়ের প্রথম স্বাক্ষী রিফাত শরীফ হত্যাকাণ্ডের দ্বিতীয় আসামি বাকিবুল হাসান রিফাত ওরফে রিফাত ফরাজি। গত বছরের ১৫ অক্টোবর আছরের নামাজের পর তাদের বিয়ে সম্পন্ন হয়। বিয়ের দেনমোহর হয়েছিল ৫ লাখ টাকা। তবে দেনমোহরের কোনো নগদ পরিশোধ ছিল না।

এই মিন্নি গত ২৬-০৬-১৯ খ্রিঃ সকাল ১০.৩০ ঘটিকার সময় রিফাত শরীফকে বরগুনা সরকারি কলেজে সাথে করে নিয়ে যায়। এবং খুনি নয়নের সাথে পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে নিজের স্বামীকে হত্যা করে।
প্রথমে কলেজের ভিতরে বসে রিফাত শরীফকে ১. নয়ন, ২. রিফাত ফরাজি ৩. রিশাদ ফরাজি ও অন্যান্য সহযোগীরা লাঠি ও চটপটি ভ্যানের লম্বা চামিচ দিয়ে এলোপাতাড়ি মারধোর করে। তখন মিন্নী দাঁড়িয়ে দাড়িয়ে তামাশা দেখতেছিল।


মারামারি এক পর্যায় মারতে মারতে রিফাত শরীফকে কলেজ গেটের সামনে নিয়ে যায়। এবং চলন্ত রাস্তার মধ্যে প্রকাশ্যে রিফাত শরীফকে কুপিয়ে গুরুতর জখম করে।
তখন মিন্নী স্বামীকে বাঁচানোর যে নাটক টা করেছে সেটার কারণে ভাইরাল হওয়া ভিডিও ফুটেজটির মাধ্যমে সাধারণ মানুষের পাব্লিসিটি পেয়ে যায়। কিন্তু পাবলিসিটি দেয়া মানুষ গুলো জানেনা এই মিন্নী খুনি নয়নের সাথে পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে হত্যা করেছে

কাজী মো. আনিসুর রহমান বলেন, বিয়ে করার জন্য নয়ন ও মিন্নিসহ ১৫ থেকে ২০ জন লোক আসে আমার অফিসে। এসময় নয়ন ও মিন্নি তাদের ১৮ বছর পূর্ণ হওয়ার প্রমাণস্বরূপ এসএসসি পরীক্ষার সার্টিফিকেট নিয়ে আসে। এরপর আমি মেয়ের বাবার সঙ্গে কথা বলে জানতে চাইলে তারা বলে, মেয়ের বাবা আসবে না, আপনি মেয়ের মায়ের সঙ্গে কথা বলেন।

এরপর মিন্নির মা পরিচয়ে একজন আমার সঙ্গে ফোনে কথা বলেন।
তিনি আমাকে বলেন, বিয়ের বিষয়টি আমরাতো জানি। মিন্নির বাবা বিয়েটা এখন মানবে না। আপনি বিয়ে সম্পন্ন করেন। বিয়ের কিছুদিন পর ঠিকই মেনে নেবেন। এরপর আমি পাঁচ লাখ টাকা দেনমোহরে নয়ন ও মিন্নির বিয়ে সম্পন্ন করি। এ বিয়ের উকিল ছিলেন শাওন নামের একজন। শাওন ডিকেপি রোডের মো. জালাল আহমেদের ছেলে।

কিন্তু এর আগে মিন্নি বলেন, আমার বিয়ে হয়েছে একমাত্র রিফাত শরীফের সঙ্গে। এছাড়া আর কখনো কারও সঙ্গে বিয়ে হয়নি। যেহেতু বিয়েই হয়নি, ডিভোর্স হওয়ার কোনো প্রশ্নই আসে না। রিফাতই আমার স্বামী এবং এটাই সত্য। আমি এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার চাই। আমি প্রধানমন্ত্রীর কাছে একটাই দাবি করি, যারা আমার স্বামীকে হত্যা করেছে আমি তাদের ফাঁসি চাই

Categories
অর্থ ও বিনিয়োগ সারা দেশ

কাপড়ের রং দিয়ে তৈরি হচ্ছে জিলাপি

হাটহাজারীর কাঠিরহাট এলাকায় ভেজালবিরোধী অভিযান চালিয়েছে উপজেলা প্রশাসন।

এ সময় কাপড়ের রং দিয়ে জিলাপি, বেগুনি ও পেঁয়াজু তৈরির সময় এক বিক্রেতাকে হাতেনাতে ধরা হয়।

শুক্রবার (১০ মে) সকালে পরিচালিত এ অভিযানে নেতৃত্ব দেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. রুহুল আমিন।

অভিযানে নিষিদ্ধ পলিথিন ও ভেজাল ঘি বিক্রির দায়ে অন্য এক দোকানিকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করার পাশাপাশি প্রায় ৬০ কেজি পলিথিন জব্দ করা হয়। এ ছাড়াও অতিরিক্ত দামে কলা বিক্রির দায়ে কলা বিক্রেতাকে ২ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

Categories
অর্থ ও বিনিয়োগ লাইফ

জেনে নিন উচ্চ রক্তচাপ বা হাই প্রেসারের লক্ষন,কারন,প্রতিকার

উচ্চ রক্তচাপ বা হাই ব্লাড প্রেসার মুহুর্তেই বয়ে আনতে পারে মানুষের জীবনের চরম অধ্যায়। করোনারি হার্ট ডিজিজ, হার্টফেল, স্ট্রোক, কিডনি অকেজো ইত্যাদি মারাত্মক সমস্যা দেখা দিতে পারে উচ্চ রক্তচাপের ফলে।
আজ আমরা বাংলাদেশ আকুপ্রেশার সোসাইটির আকুপ্রেশার বিশেষজ্ঞ মনোজ সাহা নিকট হাই ব্লাড প্রেসার বা উচ্চ রক্তচাপ কেন হয় এবং এর করণীয় বা চিকিৎসা পদ্ধতি সম্পর্কে জানবো।

উচ্চ রক্তচাপ কেন হয়ঃ
রক্ত চাপ যখন স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি হয়, তখন উচ্চ রক্তচাপ হয়। মস্তিস্ক মেরুজল হৃৎপিণ্ডের তৃতীয় অংশ থেকে ওপরে উঠে স্নায়ুতন্ত্রে প্রবেশ করে। যখন মস্তিষ্ক মেরুজলে লবণের পরিমাণ বেড়ে যায়, তখন বহির্গত নালির বাল্বের ভেতরে অবস্থিত চুলের মতো সূক্ষ কোষগুলো শক্ত হয়ে যায়। এর ফলে মস্তিষ্ক মেরুজলের প্রবাহ ব্যাহত হয়। হৃৎপিণ্ডের তৃতীয় অংশে এই মস্তিষ্ক মেরুজলকে ওপরে ঠেলার জন্য যে চাপের সৃষ্টি হয় তাই উচ্চ রক্তচাপ।

অনেক সময় দুশ্চিন্তাজনিত কারণ থেকেও এটি হতে পারে। উচ্চ রক্তচাপের ফলে করোনারি হার্ট ডিজিজ, হার্টফেল, স্ট্রোক, কিডনি অকেজো ইত্যাদি মারাত্মক সমস্যা দেখা দেয়।

উচ্চ রক্ত চাপের লক্ষণঃ

★মাথাব্যথা, বিশেষ করে পেছনের দিকে ব্যথা। অনেক সময় সকালে ঘুম থেকে উঠার পর ব্যথা অনুভূত হয়। দু-চার ঘণ্টা পর কমে যায়।

★মাথা ঘোরানো,

★বুক ধড়ফড় করা,

★মনোযোগের অভাব,

★অল্পতে হাঁপিয়ে যাওয়া,

★মাংসপেশির দুর্বলতা,

★ পা ফুলে যাওয়া,

★ বুকে ব্যথা হওয়া,

★ নাক দিয়ে রক্ত পড়া,

★ক্লান্তিবোধ করা,

★ ঘাড়ে ব্যথা হওয়া।

হাই প্রেসারের কারণঃ

★ধূমপান

★ ওজন বেশি

★অলস জীবন-যাপন

★খাবারের সঙ্গে বেশি লবণ গ্রহণ

★নেশাজাতীয় দ্রব্য সেবন

★বংশগত কারণে

★ক্রনিক কিডনি রোগ

★অ্যাড্রেনাল ও থাইরয়েড গ্রন্থির সমস্যা।

উচ্চ রক্তচাপে তাৎক্ষনিক করনীয়ঃ
উচ্চ রক্তচাপ হলে চোখ বন্ধ করে দুই হাতের কনিষ্ঠ আঙুল কানের মধ্যে দিয়ে ২-৩ মিনিট কান ঝাঁকুনি দিন।

প্রাকৃতিক কিছু পথ্যসমূহঃ

  • এক মাস সকাল ও সন্ধ্যায় দুই চামচ করে থানকুনি পাতার রস সেবন করুন। অথবা রসুন ১ কোয়া করে দুবেলা ভাতের সঙ্গে ১৫ দিন খান।
  • ৪টি তুলসীপাতা ও ২টি নিমপাতা ১ চা চামচ পানিতে চটকিয়ে খেয়ে নিন।
  • ১০০ গ্রাম পানিতে মাঝারি আকারের অর্ধেকটা লেবু চিপে দিনে ২-৩ বার পান করতে হবে।

উচ্চ রক্তচাপ থাকলে অবশ্য করণীয়ঃ

  • ওজন কামানো,
  • লবণ ও সোডিয়ামযুক্ত খাদ্য কম গ্রহণ,
  • হাঁটা, দৌড়ানো, সাঁতার কাটা ও শারীরিক পরিশ্রম করা,
  • রেড মিট বর্জন করা।

রিফ্লেক্সো্লজি বিন্দুসমূহঃ

৩, ৪, ৮, ২৫, ২৮, ৩৬, NP, MF উচ্চ রক্তচাপের জন্য ওপরের প্রতিটি পয়েন্টে ৭০ থেকে ৮০ বা ২ মিনিট একটি সুচালো ভোঁতা কাঠি দ্বারা চাপ প্রয়োগ করতে হয়। প্রতি ১ সেকেন্ডে ১টি করে চাপ দিতে হবে। ৬ ঘণ্টা পর পর দিনে সর্বোচ্চ ৩-৪ বার রিফ্লেক্সোলজি করা যায়। একেবারে খালি পেটে অথবা ভরা পেটে রিফ্লেক্সোলজি করা ঠিক নয়। খাওয়ার আধ ঘণ্টা পরে করা যাবে। রোগের বয়স যত দিন তার ১ : ১০ ভাগ সময়কাল পর্যন্ত থেরাপি করলে রোগ নিরাময় সম্ভব।

Categories
অর্থ ও বিনিয়োগ

ঝালকাঠিতে সোস্যাল ইসলামী ব্যাংকের ১৫২তম শাখা উদ্বোধন

নাঈমুর রহমান শান্ত, ঝালকাঠি প্রতিনিধি:
বৃহস্পতিবার দুপুরে ঝালকাঠি শহরের ডাক্তারপট্টি এলাকায় সোস্যাল ইসলামী ব্যাংকের ১৫২তম শাখার উদ্বোধন করা হয়। প্রধান অতিথি হিসেব ফিতা কেটে শাখাটির উদ্বোধন করেন ব্যাংকের পরিচালক ডাক্তার মো. জাহাঙ্গীর হোসেন। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন ঝালকাঠি জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সরদার মো. শাহআলম, পৌর মেয়র লিয়াকত আলী তালুকদার, স্থানীয় চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি মাহাবুব হোসেন ও কাউন্সিলর হাফিজ আল মাহাম্মুদ ।ব্যাংকের অতিরিক্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালক কাজী তৌহিদুল আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে ব্যাংকের ঝালকাঠির শাখা ব্যবস্থাপক মো. রিয়াজ উদ্দিনসহ স্থানীয় ব্যবসায়ীরা বক্তব্য দেন। উদ্বোধনের পর থেকে ব্যাংকটির সার্বিক কার্যক্রম শুরু হয়।

Categories
অর্থ ও বিনিয়োগ দেশ

কুড়িগ্রামের উলিপুরে ফাস্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংকের শাখা উদ্বোধন

আসাদুজ্জামান সরকার, উলিপুর(কুড়িগ্রাম):
কুড়িগ্রামের উলিপুরে ফাস্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংক লিমিটেডের ১৭৫তম শাখার উদ্বোধন করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার(২০ই ডিসেম্বর) দুপুরে খাঁন প্লাজায় উলিপুর শাখা কার্যালয় উদ্বোধন করেন, ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সৈয়দ ওয়াসেক মোঃ আলী। সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট শাহাজাদা বসুনীয়ার উপস্থাপনায় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, শাখা ব্যবস্থাপক একেএম ওয়ারেসুজ্জামান, ব্যবস্থাপক অপারেশন, মাসুম মিয়া, মরিয়ম চক্ষু হাসপাতালের নির্বাহী পরিচালক একেএম কামরুল ইসলাম ফরহাদ, উলিপুর প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক সহকারী অধ্যাপক জাহাঙ্গীর আলম সরদার, সুজন উলিপুর শাখার সাধারণ সম্পাদক নুরে আলম সিদ্দিকী, বিশিষ্ট ব্যাবসায়ী আরমান আলী প্রমুখ।

Categories
অর্থ ও বিনিয়োগ

বাজারে কমতে শুরু করেছে শীতকালীন সবজির দাম

 

আসাদুজ্জামান সরকার, উলিপুর(কুড়িগ্রাম):

দেশে বইতে শুরু করেছে শীতের হাওয়া। তারসাথে চাহিদা বেড়েছে শীতকালীন সবজির। এই সামঞ্জস্যতা বাজায় রেখে বেড়েছে সবজির দামও। পর্যাপ্ত সরবরাহ থাকায় আগের সপ্তাহের তুলনায় ৫ থেকে ১০ টাকা পর্যন্ত কমেছে বিভিন্ন ধরনের সবজির দাম। উলিপুরে পৌরবাজারের বেশ কয়েকটি কাঁচাবাজারের আড়ঁৎ ও দোকান ঘুরে এমন তথ্য জানা যায়। ফুলকপি, বাঁধাকপি, শিম, গাজর, লাউ, কাঁচা টমেটো, মুলা, বেগুনসহ নানা রকমের সবজিতে বাজার ভর্তি। সোমবার প্রতি কেজি পাকা টমেটো ৫০ টাকা, কাঁচা টমেটো ৩০ টাকা,পুঁটি শিম ৩০ টাকা কালাই শিম ৬০ টাকা ও শসা ২০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। এ সব বাজারে প্রতি কেজি গাজর ৬০ টাকা, ঢেঁড়স ৬০ টাকা, মূলা ১০ টাকা, বেগুন ১৫টাকা, কচুর লতি ১৫ টাকা, ঝিঙা ৪০ টাকা, বামনি করলা ৪০ টাকা, উস্তা করলা(ছোট) ৮০ টাকা, কাকরোল ৪০ টাকায় বিক্রি করতে দেখা গেছে।প্রতি পিস বাঁধাকপি ও ফুলকপি ২০থেকে ২৮ টাকায়, লাউ ৩০ টাকায় এবং জালি কুমড়া ২০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। এছাড়া কলমি শাক ও লাল শাক ১৫ থেকে ২০ টাকায়, লাউ শাক ১০ টাকায়, পালং শাক ২০ টাকায়, পুঁই শাক ১৫ টাকায় বিক্রি করতে দেখা গেছে। এদিকে, প্রতি কেজি মিনিকেট চাল ৪৮ থেকে ৫২ টাকায় দেশী মোটা ও আটাশ চাল ২৮ থেকে ৩২ টাকায় বিক্রি করতে দেখা গেছে সোমবার । প্রতি কেজি মসুর ডাল (দেশি) ৮০ টাকায়, মসুর ডাল মোটা ৫৫ টাকায়, মুগ ডাল (চিকন) ১২০ টাকায়, মুগ ডাল (মোটা) ৭০ টাকায়, ভোজ্যতেল প্রতি লিটার খোলা ৮০ টাকায় ও বোতলজাত ৯৮ টাকায় বিক্রি হচ্ছে প্রতিকেজিআদা(দেশী)২০০টাকায়,ভারতীয় আদা (এলচি) ১৬০ টাকায়, ভারতীয় রসুনের প্রতি পাল্লা (পাঁচ কেজি) ১৫০ টাকায় ও দেশি রসুন ২৫০ টাকায় বিক্রি করতে দেখা গেছে। অন্যদিকে পেঁয়াজ (দেশি) প্রতি কেজি ৩২টাকা, ভারতীয় ২৫টাকা, আলু (দেশী) ৩০ টাকা কেজি ও আলু(হলান্ড)২৪টাকা দরে বিক্রি করতে দেখা যায়। বাজারে প্রতি ৮০০ থেকে ৯০০ গ্রাম ওজনের ইলিশ ৭০০ থেকে ৯০০টাকায়, ৭০০ গ্রাম ওজনের ইলিশ ৫০০থেকে ৭০০ টাকায়, ৫০০ গ্রাম ওজনের ইলিশ ৪০০থেকে ৫০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। এসব বাজারে মাছের আকারভেদে প্রতি কেজি ট্যাংরা মাছ ৩০০থেকে ৩৫০টাকা, শিং ৩০০থেকে৪০০ টাকার মধ্যে, পাবদা ৩০০ থেকে ৫০০ টাকা, চিংড়ি ৫০০ থেকে ৬০০ টাকা, পাঙ্গাস ১২০ টাকা, কৈ ১৬০ টাকা, তেলাপিয়া ১২০ থেকে ১৪০ টাকা, মলা ২০০ টাকাথেকে৩০০টাকা,রুই(ছোট)১৬০থেকে২০০টাকা রুই(বড়)২০০থেকে২২০টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। অন্যদিকে, প্রতি কেজি ব্রয়লার মুরগি বিক্রি হচ্ছে ১৫০ টাকায়। লেয়ার মুরগি (পাকিস্তানী) ২২০ টাকা, গরুর মাংস ৪৪০ টাকা, খাসির মাংস ৭০০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।

Categories
অর্থ ও বিনিয়োগ

নোয়াখালীতে ইসলামী ব্যাংকের ৩৪১তম শাখা উদ্বোধন।

মোঃইব্রাহিম নোয়াখালী প্রতিনিধি।

নোয়াখালী সদর উপজেলার সোনাপুর বাজারে ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেডের ৩৪১তম শাখা আজ সকালে ফিতা কেটে উদ্বোধন করা হয়েছে।
নোয়াখালী জোন প্রধান ও এক্সিকিউটিভ ভাইস প্রেসিডেন্ট রুকন উদ্দিন এর সভাপতিত্বে উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী মাহবুব উল আলম।
বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন,নোয়াখালী ইসলামিয়া কামিল মাদ্রাসার অধ্যক্ষ হাফেজ ওহিদুল হক, নোয়াখালী পৌর বনিক সমিতির সভাপতি একেএম সায়েফ উদ্দিন সোহান, সোনাপুর পৌর বনিক সমিতির সাধারন সম্পাদক সৈয়দ জামাল নাসের উদ্দিন, পৌর ৯নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ফখর উদ্দিন।

Categories
অর্থ ও বিনিয়োগ জাতীয় শিল্প ও বাণিজ্য

২৬তম বৃহৎ অর্থনীতি হচ্ছে বাংলাদেশ

ঢাকা, শুক্রবার, ০৫ অক্টোবর ২০১৮ | ২০ আশ্বিন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

আগামী ২০৩০ সালের মধ্যে বৈশ্বিকভাবে দেশজ উৎপাদন বা জিডিপির ভিত্তিতে ২৬তম বৃহৎ অর্থনীতির দেশ হবে বাংলাদেশ। বিশ্ব অর্থনীতিতে এখন বাংলাদেশের অবস্থান ৪২তম। বৃহৎ অর্থনীতির দেশগুলোর মধ্যে অর্থনৈতিকভাবে দ্রুত এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ।

লন্ডনভিত্তিক এইচএসবিসি-র বৈশ্বিক গবেষণার ভিত্তিতে তৈরি এক সাম্প্রতিক প্রতিবেদনে এ তথ্য উঠে এসেছে।

‘দ্য ওয়ার্ল্ড ইন ২০৩০: আওয়ার লং টার্ম প্রজেকশন ফর ৭৫ কান্ট্রিস’ শীর্ষক প্রতিবেদনে বলা হয়, ২০১৮ সাল থেকে ২০৩০ সালের মধ্যে বাংলাদেশের অর্থনীতি ১৮ ধাপ এগিয়ে যাবে।
অর্থনৈতিকভাবে এগিয়ে যাওয়ার দিক থেকে বাংলাদেশের পরেই রয়েছে ফিলিপাইন, পাকিস্তান, ভিয়েতনাম ও মালয়েশিয়া।

প্রতিবেদনে বলা হয়, সম্ভাব্য প্রবৃদ্ধিই কোনো দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নের প্রধান অংশ। এটা খুবই স্পষ্ট যে বাংলাদেশের সম্ভাব্য প্রবৃদ্ধি আরো বাড়বে। ধনী দেশ নরওয়ের মতোই এটা হতে পারে।

এইচএসবিসির দীর্ঘমেয়াদি প্রবৃদ্ধি মডেলে দেখানো হয়, ২০৩০ সাল পর্যন্ত প্রতিবছর বাংলাদেশের জিডিপিতে প্রত্যেক বছর ৭ দশমিক ১ শতাংশ প্রবৃদ্ধি হবে। যা প্রতিবেদনটির ৭৫ দেশের মধ্যে সর্বোচ্চ।

বলা হচ্ছে, ২০১৮ থেকে ২০২৩ সালের মধ্যে ৭ দশমিক ৩ শতাংশ ও ২০২৩ থেকে ২০২৮ সালের মধ্যে ৭ শতাংশ এবং ২০২৮ থেকে ২০৩৩ সালের মধ্যে ৭ দশমিক ২ শতাংশ প্রবৃদ্ধি হবে।

এতে আরো বলা হয়, ২০৩০ সালে বাংলাদেশের অর্থনীতির পরিমাণ দাঁড়াবে ৭০০ বিলিয়ন মার্কিন ডলারে। এখন অর্থনীতির পরিমাণ ৩০০ বিলিয়ন মার্কিন ডলার।

এইচএসবিসির দীর্ঘমেয়াদি প্রবৃদ্ধি নিয়ে তৈরি করা প্রতিবেদনে বিশ্ব অর্থনীতিতে অগ্রসর, উদীয়মান ও উন্নত ৭৫টি দেশের প্রবৃদ্ধির ভিত্তিতে র‌্যাংকিং করা হয়েছে।

এতে বলা হয়, আগামী দশকেও চীন বিশ্বের একক বাজার হিসেবে বিশ্ব অর্থনীতিতে অবদান রাখবে। এছাড়াও ২০৩০ সালের মধ্যে চীন হবে বিশ্বের শীর্ষ বৃহৎ অর্থনীতির দেশ। এছাড়াও ভারত হবে বিশ্বের তৃতীয় বৃহৎ অর্থনীতির দেশ।

প্রতিবেদনটি তৈরির ক্ষেত্রে অর্থনীতির ছয়টি প্রধান নির্দেশকের ওপর লক্ষ্য রাখা হয়েছে। এগুলো হলো- প্রবৃদ্ধির মান, জনসংখ্যা (আকার ও আকৃতি), মানবসম্পদ (শিক্ষা ও স্বাস্থ্য), রাজনীতি, উন্মুক্ততা, প্রযুক্তি।

এতে বলা হয়, যতো বেশি শিক্ষিত শ্রমশক্তি থাকবে দেশ ততো বেশি উৎপাদনশীল হবে।সূত্র:কালের কন্ঠ

Categories
অর্থ ও বিনিয়োগ বিশ্ব অর্থনীতি

ব্যয়বহুল শহরের তালিকায় বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকাও আছে।

বিশ্বের সবচেয়ে ব্যয়বহুল শহর চীনের হংকং। ব্যয়বহুল শহরের তালিকায় বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকাও আছে। তালিকায় ঢাকার অবস্থান ৬৬ তম।

বসবাসের জন্য বিশ্বের ব্যয়বহুল শহরের এ তালিকাটি আজ মঙ্গলবার প্রকাশ করেছে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক মানবসম্পদ পরামর্শক প্রতিষ্ঠান মার্সার। একটি নির্দিষ্ট শহরে বসবাসকারী বিদেশি নাগরিকদের জন্য শহরটি কতটা ব্যয়বহুল, তার ভিত্তিতে এই তালিকা প্রস্তুত করা হয়েছে। গত ২৪ বছর ধরে এ তালিকাটি প্রকাশ করে আসছে মার্সার।
মার্সারের প্রতিবেদন অনুযায়ী, তালিকার দ্বিতীয় স্থানে আছে জাপানের রাজধানী টোকিও। শীর্ষ দশে থাকা অন্য শহরগুলো হলো সুইজারল্যান্ডের জুরিখ, সিঙ্গাপুরের সিঙ্গাপুর সিটি, দক্ষিণ কোরিয়ার রাজধানী সিউল, অ্যাঙ্গোলার রাজধানী লুয়ান্ডা, চীনের সাংহাই, চাদের রাজধানী এনজামিনা, চীনের রাজধানী বেইজিং ও সুইজারল্যান্ডের আরেক শহর বার্ন। শীর্ষ দশে সবচেয়ে বেশি ছয়টি শহর এশিয়া মহাদেশের।

ক্রমেই বেড়ে চলা বাড়ি ভাড়ার কারণে গত এক বছরে হংকংয়ে বসবাসের খরচ এখন সবচেয়ে বেশি বলে প্রতিবেদনে বলা হয়েছে। হংকংয়ে জায়গার সংকটের কারণে আবাসন খরচ সব সময়ই ব্যয়বহুল। গত বছর ব্যয়বহুল শহর হিসেবে হংকংকে হটিয়ে শীর্ষস্থানে উঠে এসেছিল আফ্রিকার দেশ অ্যাঙ্গোলার রাজধানী লুয়ান্ডা। এবার এ শহরটি রয়েছে ছয় নম্বরে। লুয়ান্ডা সম্পর্কে প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মার্কিন ডলারের বিপরীতে স্থানীয় মুদ্রার দুর্বল অবস্থানের কারণেই এমনটি হয়েছে।Image result for ঢাকা

ব্যয়বহুল শহরের তালিকায় ঢাকা উন্নত বিশ্বের অনেক শহরকেও পেছনে ফেলেছে। এর মধ্যে ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লি, মালয়েশিয়ার রাজধানী কুয়ালালামপুর, বেলজিয়ামের রাজধানী ব্রাসেলস, জার্মানির ফ্রাঙ্কফুর্ট, যুক্তরাষ্ট্রের বোস্টনের মতো শহর রয়েছে। তালিকা অনুয়ায়ী, প্রতিবেশী দেশ ভারতের সবচেয়ে ব্যয়বহুল শহর এখন মুম্বাই। এই শহরটি রয়েছে ৫৫ তম স্থানে।

তালিকায় বিশ্বের মোট ২০৯টি শহর স্থান পেয়েছে। এর মধ্যে সবচেয়ে কম ব্যয়বহুল শহর নির্বাচিত হয়েছে উজবেকিস্তানের রাজধানী তাশখন্দ। কম ব্যয়বহুল শহরের তালিকায় এরপরের দুটি স্থানে আছে তিউনিসিয়ার রাজধানী তিউনিস ও কিরগিজস্তানের রাজধানী বিশকেক।

এ তালিকা তৈরিতে যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্ক শহরে বসবাসের খরচকে মানদণ্ড হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছে। নিউইয়র্কে বসবাসের খরচের সঙ্গে অন্য শহরের তুলনা করে তালিকাটি করা হয়েছে। এটি করতে গিয়ে ২০০টি বিষয় বা সূচককে বিবেচনায় নেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে আছে বাসা ভাড়া, খাবার, পোশাক, যাতায়াত, বিনোদনের খরচ। সিনেমা দেখার টিকিটের দামের পার্থক্য, এক কাপ চা ও কফির দাম, এক লিটার বোতলজাত পানি, পেট্রল ও দুধের দামের মতো বিষয়গুলোও বিবেচনায় নেওয়া হয়েছে। প্রতিটি পণ্যের দাম মার্কিন ডলারের বিপরীতে একটি শহরে প্রচলিত মুদ্রার মুদ্রার ওঠা-নামার সঙ্গে তুলনা করে নির্ধারণ করা হয়েছে।

প্রতিবেদনটি সম্পর্কে মার্সারের এশিয়া, মধ্যপ্রাচ্য, আফ্রিকা ও তুরস্কের গ্লোবাল মোবিলিট প্রাকটিস লিডার মারিও ফেরারো বলেন, খাদ্য ও অন্যান্য সেবা এবং মুদ্রার বিনিময় মূল্যের মুদ্রাস্ফীতির ওঠা-নামার কারণে এশিয়ার শহরগুলোতে বসবাসের খরচ বাড়ছে।