Categories
আমার ক্যাম্পাস নিউজ কর্নার

কম্পিউটার চুরির ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীসহ আটক ৭

গোপালগঞ্জের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেমুরবিপ্রবি) কেন্দ্রীয় লাইব্রেরি থেকে চুরি হওয়া ৪৯ টি কম্পিউটার চুরির সংশ্লিষ্ট ০৭ জনকে আটক করেছে পুলিশ।
বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন গোপালগঞ্জ সদর থানার এসআই মিজান। তিনি জানান, বশেমুরবিপ্রবির একুশে ফেব্রুয়ারি গ্রন্থগার লাইব্রেরী থেকে ৪৯টি কম্পিউটার চুরির ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার ড. নূর উদ্দিন আহমেদ বাদি হয়ে গোপালগঞ্জ সদর থানায় গত ১০ আগস্ট একটি মামলা করেন।মামলার ভিত্তিতে গতকাল শুক্রবার রাতে অভিযান চালিয়ে গোপালগঞ্জের বিভিন্ন এলাকা থেকে একজন ছাত্রসহ মোট পাঁচজনকে আটক করা হয়েছে। ঘটনার গোপনীয়তার স্বার্থে তাদের পরিচয় সাময়িক সময় গোপন রাখা হয়েছে। এছাড়াও ঘটনায় সংশ্লিষ্টদের তদন্ত অভিযান কার্য চলমান থাকবে বলে তিনি জানান।
বিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার ড. নূর উদ্দিন আহমেদ বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের যে ৪৯টি কম্পিউটার চুরির সাথে সংশ্লিষ্ট মোট ০৭ জনকে আটক করেছে পুলিশ । এটা আমারা গণমাধ্যমের মাধ্যমে জেনেছি তবে এখনও অফিসিয়াল ভাবে জানতে পারিনি।
এরআগে গত বৃহস্পতিবার (১৩ আগস্ট) রাত সাড়ে ১০ টায় রাজধানীর বনানী এলাকার একটি হোটেল থেকে চুরি হওয়া কম্পিউটারগুলো থেকে ৩৪ টি কম্পিউটার উদ্ধার করা হয়। ঐসময়ে হোটেল মালিক দুলালসহ বয় হুমায়ুনকে আটক করে পুলিশ।
প্রসঙ্গত, ইদ-উল-আযহার ছুটিতে বশেমুরবিপ্রবির কেন্দ্রীয় লাইব্রেরি থেকে ৪৯টি কম্পিউটার চুরি হয়েছে। এ ঘটনায় সাত সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়।

Categories
আমার ক্যাম্পাস রাজশাহী

সিলসা রাবি উইং এর এক্সিকিউটিভ রিক্রুটমেন্ট সম্পন্ন

[et_pb_section][et_pb_row][et_pb_column type=”4_4″][et_pb_text]

করোনা মহামারীর কারণে বাংলাদেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পাশাপাশি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ও প্রায় চার মাস হলো বন্ধ। কিন্তু, থেমে নেই সিলসা রাবি উইং এর কার্যক্রম। সকল বিভাগের ক্লাস স্থগিত থাকলেও অনলাইনেই সম্পন্ন হয়েছে রাবি উইং এর এক্সিকিউটিভ রিক্রুটমেন্ট ৩.০।

রেজিস্ট্রেশন, নন-ভার্বাল টেস্ট ও ভার্বাল টেস্ট এ তিনটি ধাপে সম্পন্ন হয়েছে সিলসা রাবি উইং এর এক্সিকিউটিভ রিক্রুটমেন্ট। প্রথম ধাপে অনলাইনে রেজিস্ট্রেশন করেছে আগ্রহী শিক্ষার্থীরা।

নন-ভার্বাল টেস্ট এর প্রথম পর্যায়ে রেজিস্ট্রেশন করা শিক্ষার্থীদের অনলাইনে ইংরেজী, Intelligence Quotient (IQ) ও সাধারণ গণিতের উপর ভিত্তি করে পরীক্ষা নেওয়া হয়েছে এবং দ্বিতীয় পর্যায়ে সারপ্রাইজ রাউন্ডে শিক্ষার্থীদের কিছু টিমে ভাগ করে কেস সলভ করতে দেওয়া হয়েছে।

অতঃপর, সর্বশেষ ধাপ, ভার্বাল টেস্ট এর জন্য কৃতকার্য পরিক্ষার্থীদের মেসেঞ্জার রুমের মাধ্যমে সিলসা রাবি উইং এর পক্ষ থেকে মৌখিকভাবে পরীক্ষা নেওয়ার মাধ্যমে সম্পন্ন হয় সিলসা রাবি এক্সিকিউটিভ রিক্রুটমেন্ট ৩.০।

এছাড়া এক্সিকিউটিভ রিক্রুটমেন্ট শেষে নব্য এক্সিকিউটিভ দের জন্য সিলসা রাবি উইং এর পক্ষ থেকে ‘গুগল মিট’ এর মাধ্যমে আয়োজন করা হয়েছে অনলাইন আইস ব্রেকিং সেশন।

এবছর সিলসা রাবি উইং এক্সিকিউটিভ রিক্রুটমেন্ট ৩.০ এ তিন শতাধিক শিক্ষার্থী আবেদন করেছিলেন এবং তন্মধ্যে ধাপে ধাপে বাছাই এর মাধ্যমে ১২৫ জন শিক্ষার্থীকে এক্সিকিউটিভ হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।

ভবিষ্যৎ পরিকল্পনার কথা জানাতে গিয়ে রাবি উইং এর প্রেসিডেন্ট জনাব শামীম হোসেন বলেন, “নতুন রিক্রুটমেন্টের মাধ্যমে আমরা প্রায় ৪৫ টি বিভাগের শিক্ষার্থীদের একত্রিত করতে পেরেছি, এবং বিভিন্ন ধাপে তাদের পরীক্ষা করে দেখেছি তারা প্রত্যেকেই অসাধারণ মেধাবী। আমাদের মূল লক্ষ্য একটাই, তা হলো অনলাইনের মাধ্যমে আমরা যেন আরো শক্ত ও সুনিপুণভাবে ভর্তিচ্ছুদের সহায়তা করতে পারি, আর সেই লক্ষ্যকে সামনে রেখে কোয়ালিটি এডুকেশন এবং গাইডলাইন প্রদানে সিলসা রাবি উইং আরো বেশি সংকল্পবদ্ধ।”

উল্লেখ্য,   সিলসা হলো সাধারণ শিক্ষার্থীদের কল্যাণের জন্য বাংলাদেশের পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর  শিক্ষার্থীদের দ্বারা পরিচালিত একটি অলাভজনক প্রতিষ্ঠান যা মাধ্যমিক,উচ্চমাধ্যমিক ও বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরিক্ষার্থীদের বিভিন্নভাবে একাডেমিক এবং নন একাডেমিক গাইডলাইন দিয়ে থাকে। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের কতিপয় উদ্যমী তরুন ২০১৭ সালের আগস্ট মাসে  “ছাত্রের জন্য ছাত্র” শ্লোগান কে কেন্দ্র করে ফেসবুক গ্রুপ “ড্রিম টু রাজশাহী ইউনিভার্সিটি” খুলার মাধ্যমে সিলসা রাবি উইং যাত্রা শুরু করে।

এম আর/টাইমস

[/et_pb_text][/et_pb_column][/et_pb_row][/et_pb_section]
Categories
আমার ক্যাম্পাস

করোনায় অস্বচ্ছল শিক্ষার্থীদের আর্থিক সহয়তা প্রদান করবে হাবিপ্রবি কর্তৃপক্ষ

আজিজুর রহমান হাবিপ্রবি প্রতিনিধিঃ
মহামারি করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে অধ্যয়নরত অস্বচ্ছল শিক্ষার্থীদের পাশে দাঁড়িয়েছে হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (হাবিপ্রবি)।পারিবারিকভাবে অস্বচ্ছল শিক্ষার্থীদের এককালীন আর্থিক প্রণোদনা প্রদান করবে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।
এক বিজ্ঞপ্তিতে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র পরামর্শ ও নির্দেশনা বিভাগের পরিচালক ও ট্রাস্টিবোর্ডের সদস্য সচিব  অধ্যাপক ড. ইমরান পারভেজ।
বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়,করোনাভাইরাস এর প্রার্দুভাব মোকাবেলায় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃক গৃহীত বিভিন্ন উদ্যোগের অংশ হিসেবে অত্র বিশ্ববিদ্যালয় অধ্যয়নরত পারিবারিকভাবে অস্বচ্ছল শিক্ষার্থীদের বর্তমান অবস্থা বিবেচনা করে বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রাস্টি বোর্ডের সিদ্বান্ত মোতাবেক “ছাত্র-কল্যান তহবিল” হতে এককালীন আর্থিক প্রণোদনা প্রদান করা হবে।
এমতাবস্থায় উল্লেখিত আর্থিক প্রণোদনা পেতে
আগ্রহী শিক্ষার্থীদের বিশ্ববিদ্যালয় এবং ছাত্র পরামর্শ এবং নির্দেশনা শাখার ওয়েবসাইটে প্রদত্ত লিংকের মাধ্যমে আগামী ০৫/০৬/২০২০ ইং তারিখের মধ্যে আবেদন করতে বলা হয়েছে।
বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়,আবেদনে প্রদত্ত তথ্য অসম্পূর্ণ/ভুল/অসত্য হলে আবেদনটি সরাসরি বাতিল বলে গণ্য হবে।আবেদনকারীদের মধ্য থেকে অনুষদ/বিভাগ ভিত্তিক নির্দিষ্ট সংখ্যক প্রকৃত অস্বচ্ছল শিক্ষার্থীদের বাছাইপূর্বক উক্ত এককালীন আর্থিক প্রণোদনা প্রদান করা হবে। বাছাইয়ের ক্ষেত্রে বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্তই চূড়ান্ত বলে বিবেচিত হবে।
বাছাইকৃত শিক্ষার্থীদেরকে এস.এম.এস. এর মাধ্যমে প্রণোদনা প্রাপ্তির বিষয়টি জানানো হবে।
Categories
আমার ক্যাম্পাস

সেমিস্টার ফাইনাল ছাড়াই গ্রেড পাবে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীরা : ইউজিসি

নভেল করোনাভাইরাসের মহামারীর মধ্যে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় সেমিস্টার ফাইনাল পরীক্ষা না নিয়েই শিক্ষার্থীদের চলতি সেমিস্টারের গ্রেডিং করতে পারবে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলো। এই ফলাফল বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক কাউন্সিলের সুপারিশের ভিত্তিতে প্রকাশ করতে হবে। এক্ষেত্রে শিক্ষার্থীদের বিগত সেমিস্টারের প্রাপ্ত গ্রেড পর্যালোচনা করার সুপারিশ করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (৭ মে) বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের (ইউজিসি) বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় বিভাগের পরিচালক ড. মো. ফখরুল ইসলাম স্বাক্ষরিত কার্যালয় স্মারকের মাধ্যমে এই তথ্য জানানো হয়।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ইউজিসির বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় বিভাগের পরিচালক ড. মো. ফখরুল ইসলাম বলেন, করোনা পরিস্থিতির এই সময় আরো দীর্ঘ হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এই মুহূর্তে বিশ্ববিদ্যালয়ে গিয়ে পরীক্ষা দেওয়ারও সুযোগ নেই। শিক্ষার্থীদের যেন সময় নষ্ট সেজন্য আমরা এমন বিকল্প পদ্ধতি অবলম্বন করার কথা বলেছি। তবে এটি শুধুমাত্র চলতি সেমিস্টারর জন্য প্রযোজ্য হবে। বিশ্বের অনেক দেশ এই পদ্ধতিতে শিক্ষার্থীদের ফলাফল দিয়ে থাকে। আমরা সার্বিক দিক বিবেচনায় এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

ড. মো. ফখরুল ইসলাম আরও বলেন, ফলাফল প্রস্তুতির ক্ষেত্রে যেসব বিশ্ববিদ্যালয় করোনা পরিস্থিতির আগে ন্যূনতম ৬০ শতাংশ ক্লাস সম্পন্ন করেছে তারা এখন কোনো ক্লাস-পরীক্ষা না নিলেও চলবে। শিক্ষার্থীদের মিডটার্ম, কুইজ, এসাইনমেন্ট, প্রেজেন্টেশন যথাযথ মূল্যায়ন করে ফল প্রকাশ করা যাবে। এক্ষেত্রে শিক্ষার্থীদের পূর্বের সেমিস্টারের ফলাফল পর্যালোচনা করা যাবে। এই ফলাফল বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক কাউন্সিলের সুপারিশের ভিত্তিতে প্রকাশ করতে হবে।

কার্যালয় স্মারকে চলমান সেমিস্টারের শিক্ষা কার্যক্রম সম্পন্ন করার বিকল্প প্রস্তাবনা-২ এর দুই নাম্বারে বলা হয়েছে, চলমান সেমিস্টারে তত্ত্বীয় কোর্সের বিভিন্ন বিষয়ে বিষয়ে রেজিস্ট্রিকৃত শিক্ষার্থীদের অনলাইনের মাধ্যমে ওই সকল বিষয়ের অসমাপ্ত পাঠ্যসূচি ( যা ৩০% মত) সন্তোষজনক ভাবে সম্পন্ন হয়ে গেলে এবং অনলাইনের কার্যক্রম শুরুর আগে চলমান সেমিস্টারের বিভিন্ন বিষয়ে ইতোপূর্বে ক্লাসে উপস্থিতি পারফরম্যান্স, ক্লাস টেস্ট, মিড টার্ম পরীক্ষার উপর ভিত্তি করে মূল্যায়ন করা হয়েছে তার নম্বর এবং অনলাইনে অংশের উপর অ্যাসাইনমেন্ট, ভার্চুয়াল প্রেজেন্টেশন নিয়ে যথাযথ স্বচ্ছতা ও মান নিশ্চিত করে মূল্যায়ন সম্পন্ন করে ফলাফল প্রকাশ করা যাবে। মূল্যায়নের জন্য প্রয়োজন হলে পূর্বের সেমিস্টারের ফলাফল বিবেচনায় আনা যেতে পারে। সকল বিষয়ের ফলাফল বিশ্ববিদ্যালয়ের সুপারিশের ভিত্তিতে প্রকাশ করতে হবে।

Categories
আমার ক্যাম্পাস

শিক্ষার্থীদের কথা ভেবে অনলাইন ক্লাসে যাচ্ছে না ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়

শিক্ষার্থীদের অসুবিধার কথা চিন্তা করে অনলাইন ক্লাস পদ্ধতিতে যেতে নারাজ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়। করোনা পরিস্থিতিতে বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ থাকায় অ্যাকাডেমিক কার্যক্রম অনলাইনে নেওয়ার কথা বলছেন কিছু শিক্ষক, তবে দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে থেকে এ পদ্ধতিতে সবার সমান অংশগ্রহণ সম্ভব নয় বলে মনে করেন বিশ্ববিদ্যালয়টির উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান।

তবে, করোনা পরিস্থিতিতে শিক্ষা কার্যক্রম যে সময় পিছিয়ে যাচ্ছে, সেটি পরবর্তীতে কীভাবে পুষিয়ে নেওয়া যায়, সেটি নিয়ে পরিকল্পনা করা হবে বলে জানা গেছে।

উপাচার্য বলেন, ‘করোনা পরিস্থিতে বিশ্ববিদ্যালয় ক্লাস-পরীক্ষা বন্ধ থাকায় যে সময়টা পিছিয়ে যাচ্ছি, সেটি পরবর্তী সময়ের মধ্যে কীভাবে পুষিয়ে নেওয়া যায় সে বিষয়ে আলোচনা করতে আগামী ১১ মে সব ডিনদের নিয়ে একটি অনলাইন সভার আহ্বান করেছি। সেদিন সবার সঙ্গে আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেবো। আমরা কত মাস পিছিয়ে গেলাম, তা হিসেব করে পরবর্তীতে পরিকল্পনা করতে হবে। এসব বিষয় নিয়ে আমাদের গভীরভাবে ভাবতে হবে।’

অনলাইন ক্লাসের বিভিন্ন সমস্যা তুলে ধরে তিনি আরও বলেন, ‘অনেকে ঢাকায় থেকে সব সুবিধার মধ্যে থেকে অনলাইনে ক্লাস নেওয়ার কথা বলছেন। তবে যাদের জন্য অনলাইনে ক্লাস হবে, তাদের সবার ক্লাসে অংশ নেওয়ার সুযোগ আছে কিনা, তাও দেখতে হবে। যেখানে শিক্ষার্থীদের পকেটে টাকা, খাবার, ইন্টারনেট অ্যাকসেস, সামাজিক স্থিরতা, সুস্থ মন নেই। সুতরাং এ পরিস্থিতির মধ্যে রেখে অনলাইন ক্লাস নেওয়াটা সমীচীন নয়।’

আর্থিক সাহায্যের জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের পাঁচ হাজার শিক্ষার্থী আবেদন করেছে বলে জানান তিনি। তাদের অ্যালামনাই থেকে সাহায্যের কথা ভাবছে কর্তৃপক্ষ। এছাড়াও এ দুর্দিনে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে বিভিন্নভাবে যোগাযোগ রাখতে শিক্ষকদের প্রতি আহ্বান জানান উপাচার্য।

Categories
আমার ক্যাম্পাস

প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে বশেমুরবিপ্রবি’র শিক্ষক-কর্মকর্তা-কর্মচারীদের একদিনের বেতন প্রদান

বশেমুরবিপ্রবি প্রতিনিধি :

দেশে বিরাজমান করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আহবানে সাড়া দিয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে তাদের একদিনের বেতন প্রদান করেছেন।

৫ মে ২০২০ দুপুর ১টায় গোপালগঞ্জ জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য প্রফেসর ড. মো. শাহজাহান জেলা প্রশাসক শাহিদা সুলতানার হাতে পাঁচ লাখ টাকার চেক তুলে দেন।

এসময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বশেমুরবিপ্রবি’র শিক্ষক সমিতির সভাপতি ড. মো হাসিবুর রহমান, অফিসার্স এসোসিয়েশনের সভাপতি মো. নজরুল ইসলাম হিরা, সাধারণ সম্পাদক ওয়ালিদ মিয়া, পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক এস এম গোলাম হায়দার, উপ-পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মেকাইল ইসলাম, কর্মচারী সমিতির সভাপতি তরিকুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক বিএম আশিকুর রহমান। এছাড়া গোপালগঞ্জ জেলার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) আব্দুল্লাহ আল বাকী ও অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) কাজী শহিদুল ইসলাম এসময় উপস্থিত ছিলেন।

Categories
আমার ক্যাম্পাস

জাককানইবি ডিবেটিং সোসাইটির নেতৃত্বে নতুন মুখ

সুমাইয়া জান্নাত ইভা,  জাককানইবি প্রতিনিধি:

জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয় ডিবেটিং সোসাইটির (JKKNIUDS) ২০২০ সালের কার্যনির্বাহী কমিটি গঠিত হয়েছে। গত ১৫ই মার্চ ডিবেটিং সোসাইটির সকল স্থায়ী সদস্যের প্রত্যক্ষ ভোটের মাধ্যমে এ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়।

কমিটিতে সভাপতি হিসেবে নির্বাচিত হয়েছে মোঃ রাশেদ খান এবং সাধারণ সম্পাদক হিসেবে শফিকুল আলম বাপ্পী। এই কমিটি আগামী এক বছরের জন্য নির্বাচিত হয়েছে।

ডিবেটিং সোসাইটির বিতর্ক আহ্বায়ক সম্পাদক হিসেবে পর্যায়ক্রমে কলা অনুষদ থেকে আতিয়া ইবনাত, সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদ থেকে আরমান আলী, বিজ্ঞান অনুষদ থেকে সাখাওয়াত হোসেন সাকিব, ব্যবসায় অনুষদ থেকে মোঃ নিজাম উদ্দীন, আইন অনুষদ থেকে মেহেদী হাসান অনিক নির্বাচিত হয়েছে।

নির্বাচন কমিশনার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন বর্তমান মডারেটর ফাহাদুজ্জামান শিবলী, সাবেক সভাপতি ফিরোজ আহম্মেদ এবং সিনিয়র বিতার্কিক সাত্বিক মাহবুব।

কমিটির চুড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে ডিবেটিং সোসাইটির প্রধান উপদেষ্টা উপাচার্য ড. এ এইচ এম মুস্তাফিজুর রহমান এবং ডিবেটিং সোসাইটির সভাপতি শেখ সুজন আলী।

অনুমোদন পাওয়ার পর নবনির্বাচিত কমিটি বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি এবং নজরুলের প্রতিকৃতিতে ফলজ গাছ দিয়ে সম্মান প্রদর্শন করে। ডিবেটিং সোসাইটির জুড়ি বোর্ড মেম্বার স্থানীয় সরকার ও নগর উন্নয়ন বিভাগের শিক্ষক সাদিক হাসার শুভর অনুপ্রেরনায় নতুন কমিটি এই বৃক্ষ দিয়ে সম্মান প্রদর্শন করেন।

Categories
আমার ক্যাম্পাস

রাবি প্রেসক্লাবের নবীন বরণ অনুষ্ঠিত

বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের নবীন শিক্ষার্থীদের বরণ করে নিয়েছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় প্রেসক্লাব (রাবি প্রেসক্লাব)।
বৃহস্পতিবার দুপুরে প্রেসক্লাব কার্যালয়ে আড়ম্বরপূর্ণ অনুষ্ঠানের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের বরণ করে নেয়া হয়।

বিশ্ববিদ্যালয় প্রেসক্লাবের সভাপতি সালমান শাকিলের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক বেলাল হোসাইন বিপ্লবের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন, বিশ্ববিদ্যালয় উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. আনন্দ কুমার সাহা, প্রক্টর ও ভারপ্রাপ্ত ছাত্র উপদেষ্টা অধ্যাপক ড. লুৎফর রহমান, ব্যবসায় প্রশাসন ইনস্টিটিউটের অধ্যাপক ও প্রেসক্লাবের উপদেষ্টা হাছানাত আলী, বিশ্ববিদ্যালয় জিয়াউর রহমান হলের প্রাধ্যক্ষ ও প্রেসক্লাবের উপদেষ্টা অধ্যাপক রেজাউল করিম বকসী, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের অধ্যাপক সাজ্জাদ বকুল, মাছরাঙ্গা টেলিভিশন এর রাজশাহী ব্যুরো প্রধান গোলাম রাব্বানী প্রমুখ।

এসময় নবীন শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বক্তারা বলেন, সাংবাদিক হতে হলে সততা, স্বচ্ছতা, সময়ানুবর্তিতার দিকে অবশ্যই খেয়াল রাখতে হবে। সামাজিক দায়বদ্ধতার জায়গা থেকে সাংবাদিকতা করতে হবে। হলুদ সাংবাদিকতা থেকে দূরে থেকে সত্য ও ন্যায়ের কথা লেখনির মাধ্যমে জাতির সামনে তুলে ধরতে হবে।

এসময় বক্তারা আরও বলেন, যে স্বপ্ন নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় অঙ্গনে এসেছ সেই স্বপ্ন বাস্তবায়নে তোমাদেরই প্রচেষ্টা চালাতে হবে। স্বপ্নের সফল বাস্তবায়ন বাঁধাগ্রস্ত করতে পারে এমন পথগুলো থেকে দূরে থাকার চেষ্টা করবে। এবং বন্ধু নির্বাচনের ক্ষেত্রে সচেতন থাকবে। তাহলেই লক্ষ্য অর্জনে সক্ষম হবে।

এদিকে নবীনদের উদ্দেশ্যে মানপত্র পাঠ করেন ক্লাবের দপ্তর সম্পাদক সম্পা সরকার।
অন্যদিকে বিশ্ববিদ্যালয় প্রেসক্লাবের নতুন বছরের বর্ষপুঞ্জিকার মোড়ক উন্মোচন করেন অতিথিরা।
অনুষ্ঠানে নবীন শিক্ষার্থীদের ফুলেল শুভেচ্ছা, স্মরণিকা ও নতুন বছরের ক্যালেন্ডার প্রদানের মাধ্যমে বরণ করে নেয়া হয়।

এসময় অন্যান্যদের মধ্য উপস্থিত ছিলেন, রাবি প্রেসক্লাবের ২৯ তম কার্যনির্বাহী কমিটির সভাপতি মানিক রাইহান বাপ্পী, বর্তমান কমিটির সহ-সভাপতি আসিফ হাসান রাজুসহ কমিটির অন্যান্য সদস্যরা।

Categories
আমার ক্যাম্পাস

অসহায় ভাষা সৈনিকের পাশে দাঁড়াল ছাত্রলীগ

সানোয়ার হোসেন, নজরুল বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি:

চিকিৎসার অভাবে শষ্যাশায়ী বৃদ্ধ। তিনি একাধারে ভাষা সৈনিক, ৬ দফা আন্দোলনের অগ্র সৈনিক,  ‘৭০ এর নির্বাচনে নির্বাচিত গণপরিষদ সদস্য,  বীর মুক্তিযোদ্ধা এবং ১৯৯৯-২০০৪ পর্যন্ত মুক্তাগাছা পৌরসভার চেয়ারম্যান খন্দকার আব্দুল মালেক শহীদুল্লাহ। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এমন খবর ছড়িয়ে পড়লে তার চিকিৎসার সহায়তার উদ্যোগ নেয় এবং পাশে দাঁড়ায় জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ রাকিবুল হাসান রাকিব।

একজন ভাষা সৈনিক বিছানায় পড়ে কাতরাচ্ছেন এমন মর্মস্পর্শী খবরে নিজেদের দৈনন্দিন খরচের টাকা জমিয়ে, শুভাকাঙ্খীদের কাছ থেকে দান অনুদান সংগ্রহ করে ভাষা সৈনিকের চিকিৎসার সহায়তায় তার হাতে গতকাল শুক্রবার বিকেলে তুলে দেন এক লাখ ছয় হাজার নয়শত চুরাশি টাকা।

বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক রাকিবুল হাসান রাকিবের উদ্যোগে ছাত্রলীগ কর্মীদের সংগ্রহকৃত অর্থ শুক্রবার বিকেলে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে চিকিৎসাধীন ভাষা সৈনিক খন্দকার মালেক শহীদুল্লাহর হাতে টাকা তুলে নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. এ এইচ এম মোস্তাফিজুর রহমান। এসময় উপস্থিত ছিলেন নজরুল বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির যুগ্ম সাধারন সম্পাদক আসিফ ইকবাল আরিফ, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম সাধারন সম্পাদক ও ডাকসুর পরিবহন বিষয়ক সম্পাদক শামস-ই নোমান,ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের  এফ রহমান হলের ভাইস প্রেসিডেন্ট হোসাইন মোহাম্মদ আপেল, জাককানইবির ছাত্রলীগ নেতা শাহীন হোসেন সাজ্জাদসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ। এ সময় ভিসি ও ছাত্রলীগ নেতারা অসুস্থ ভাষা সৈনিকের চিকিৎসার খোঁজ খবর নেয়ার পাশাপাশি সবসময় পাশে থাকার কথা জানান।

বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক রাকিবুল হাসান রাকিব জানান, চিকিৎসার অভাবে মানবেতর জীবনযাপন করছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এমন খবর ছড়িয়ে পড়লে আমরা ব্যাক্তিগতভাবে তহবিল গঠন করে সহযোগিতার উদ্যোগ গ্রহন করি। বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা তাদের একবেলার দৈনন্দিন খরচের টাকা বাচিয়ে সহায়তা করার পাশাপাশি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, কর্মকর্তা, কর্মচারীরা তাদের ইচ্ছেমত সহায়তার করে যার মাধ্যমে আমরা এক এক লাখ ছয় হাজার নয়শত চুরাশি টাকা তাঁর হাতে তুলে দেই। পাশাপাশি বর্ষীয়ান এ নেতার চিকিৎসার জন্য বিত্তবানদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানাই।

বিশ্বদ্যিালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. এ এইচ এম মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, ভাষা সৈনিক মালেক ছিলেন জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সহযোগি। মুজিব বর্ষে এরকম একজন মহান মানুষের পাশে দাড়াতে পেরে আমি গর্বিত। নজরুল বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের এ উদ্যোগকে আমি স্বাগত জানাই। ভাষা সৈনিক এ নেতাকে দেখতে আমি হাসপাতালে এসেছি। আগামীতে উনার চিকিৎসার ব্যাপারে আমরা আরও সহযোগিতা করব। মুজিববর্ষ পালনে ছাত্রলীগের এ আয়োজন সত্যিই অনুকরণীয় হয়ে থাকবে। আমরা এ ধরনের উদ্যোগ গ্রহনের মাধ্যমে মুজিবর্ষের অনুষ্ঠান পালন করতে চাই।

উল্লেখ্য, ভাষা সৈনিক খন্দকার আব্দুল মালেক শহীদুল্লাহর বাড়ি ময়মনসিংহ জেলার মুক্তাগাছা উপজেলায়। তিনি ছিলেন মুক্তিযুদ্ধের সংগঠকও। সত্তরের নির্বাচনে নৌকা প্রতীকে লড়ে হয়েছিলেন সংসদ সদস্য ও ১৯৯৪ থেকে ১৯৯৯ সাল পর্যন্ত মুক্তাগাছা পৌরসভার মেয়র।  অথচ সেই মানুষটা এখন অর্থাভাবে চিকিৎসা করাতে পারছেন না। অসুস্থ হয়ে কয়েকমাস ধরে শয্যাশায়ী।

খোন্দকার আব্দুল মালেক শহীদুল্লাহ এক সময় রাজপথ মুখর থাকতো যার স্লোগানে সেই মানুষটিই আজ বিছানায় বন্দি। ‘৫২র ভাষা আন্দোলনে সক্রিয় অংশ নেয়ার অপরাধে ফেরারী আসামি হয়ে হারান ছাত্রত্ব। পরে সত্তরের নির্বাচনে অল্প বয়সে মুক্তাগাছা আসন থেকে নৌকা প্রতীক নিয়ে বিপুল ভোটে সংসদ সদস্যও নির্বাচিত হন তিনি। গত কয়েকমাস আগে স্ট্রোক করার পর তার ডান হাত ও পা অবশ হয়ে যায়। এরপর থেকে বেশ কষ্টে দিন কাটছে এ ভাষা সৈনিকের।

খোন্দকার আব্দুল মালেক শহীদুল্লাহর ছেলে খোন্দকার মনজুর মালেক সুদীপ্ত বলেন, চিকিৎসার ব্যয় মেটানো সম্ভব হচ্ছে না বিধায় বর্তমান পরিস্থিতিতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার হস্তক্ষেপ কামনা করছি। শুধুমাত্র ভাতার টাকা দিয়ে সংসার চালানো খুবই কষ্টসাধ্য হয়ে পড়েছে।

Categories
আমার ক্যাম্পাস রাজনীতি রাজশাহী

বিদ্যুৎ ও পানির মূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে রাবি ছাত্রদলের মানববন্ধন

বিদ্যুৎ ও পানির মূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে ও বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে মানববন্ধন করেছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রদল। বৃহস্পতিবার সকাল ৯ টায় বিশ্ববিদ্যালয় প্রধান ফটকের সামনে এ মানববন্ধন করেন তারা।

শুরুতে সিনেট ভবনের সামনে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা থাকলেও পুলিশের অনুমতি না মেলায় তারা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকের সামনে মানববন্ধনে মিলিত হন। পরে সেখানেও পুলিশী বাঁধার সম্মুখীন হওয়ায় তড়িঘড়ি করে মানববন্ধন শেষ করেন তারা।

শাখা ছাত্রদলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও শহীদ সোহরাওয়ার্দী হল ছাত্রদলের আহ্বায়ক সামসুদ্দিন চৌধুরী সানিন এর সঞ্চালনায় মানববন্ধনে বক্তব্য দেন শাখা ছাত্রদলের প্রচার সম্পাদক মেহেদী হাসান। তিনি বলেন, অগণতান্ত্রিকভাবে নির্বাচিত এ সরকারের জনগণের নিকট কোনো দায়িত্ববদ্ধতা নেই। সরকারের অদায়িত্বশীল আচরণে বাধাগ্রস্ত হচ্ছে জনজীবনের উন্নয়ন। জনভোগান্তির কথা চিন্তা না সরকার বারবার বিদ্যুৎ ও পানির দাম বাড়িয়ে যাচ্ছে। এছাড়াও তার বক্তব্যে খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবি করেন তিনি ।

এ সময় মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন শাখা ছাত্রদলের সাংগঠনিক সম্পাদক রাজু আহমেদ মামুন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সুলতান আহমেদ রাহি, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রাশেদ আলী খান, সহ সাংগঠনিক সম্পাদক শফিবুল ইসলাম, সদস্য মাহমুদুল মিঠু, মহানগর ছাত্রদলের সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং মহানগর ছেচ্ছাসেবক দলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মীর খালিদ সহ আরো অনেকে।