Categories
খেলা

বিসিবির মূল ব্যানারেই নেই আকবরের ছবি!

ক্রিকেট পরাশক্তি ভারতকে হারিয়ে আইসিসি অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাজ জিতে নিয়েছে বাংলাদেশ। এখন দেশে ফেরার পালা টাইগার যুবাদের।

বুধবার বিকাল ৪টা ৫৫মিনিটে বিশ্বকাপের সোনালি ট্রফি নিয়ে দেশে ফিরবেন অকবর আলীর দল।

জুনিয়র টাইগারদের বরণ করে নিতে এরই মধ্যে প্রস্তুতি শুরু করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।
তবে ক্রিকেট বোর্ডের প্রধান ফটকের মূল ব্যানারেই নেই বিশ্বকাপ জয়ী অধিনায়ক আকবর আলীর ছবি!

মঙ্গলবার সকালে বিসিবির প্রধান ফটকে বড় করে বাংলাদেশের বিশ্বকাপ জয়ের ব্যানার তোলে ক্রিকেট নিয়ন্ত্রণকারী সংস্থাটি। কিন্তু এই ব্যানারে স্থান পায়নি বিশ্বজয় করা অধিনায়ক আকবর আলীর ছবি।

পরে অবশ্য পাশে ছোট ব্যানার লাগানো হয়। সেখানে আকবরকে ফোকাস করেই ব্যানার লাগানো হয়। কিন্তু প্রধান ব্যানারে আকবরের ছবি না থাকার বিষয়টি সমর্থকদের জন্য দুঃখজনকই বটে।

Categories
খেলা

টিনের ছোট্ট ঘর থেকেই বিশ্বজয় রাকিবুলের

রাকিবুল হাসান। তিনি অনেকের কাছে অপরিচিত থাকলেও গত দুইদিনে বিশ্বব্যাপী আলোচনায় ছিলেন। আর সেই আলোচনা একটি দেশ নিয়ে। টিনের ছোট্ট একটি ঘর থেকে এসে বিশ্বজয় করে বাংলাদেশের নাম ইতিহাসের পাতায় লেখালেন অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট দলের এ খেলোয়াড়।
রাকিবুলের বাড়ি ময়মনসিংহের ফুলপুর উপজেলার রূপসী ইউপির বাশাটি গ্রামে। জয় উপলক্ষে মিষ্টি বিতরণসহ বিভিন্ন স্থানে আনন্দ মিছিল হয়েছে। তাকে নিয়ে সর্বত্রই বইছে আলোচনার ঝড়।

স্থানীয়রা জানায়, রাকিবুল গ্রামে জন্মগ্রহণ করলেও স্থায়ীভাবে থাকেননি। তার বাবা শহীদুল ইসলাম ঢাকায় থাকেন। তিনি পেশায় একজন গাড়িচালক। পরিবার নিয়ে তিনি সেখানেই থাকেন। তবে বছরে কয়েকবার গ্রামে বেড়াতে আসেন তারা। ওই সময় গ্রামের কিশোরদের সঙ্গে ঘুরে বেড়ান। রূপসী উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে ক্রিকেটও খেলেন।

রাকিবুলের গ্রামে গিয়ে দেখা গেছে, টিনের ছোট্ট পুরনো ঘরে কেউ না থাকায় রাকিবুলের ফুফা কামাল হোসেন পরিবার নিয়ে থাকেন। এ সময় রাকিবুলের ফুফু রোখসানা খাতুন বলেন, রাকিবুল বেশি পড়তে চাইত না। সুযোগ পেলেই ক্রিকেট খেলায় লেগে যেত। এজন্য আমরা বিরক্ত থাকলেও সে দেশের মুখ উজ্জ্বল করেছে। আমরা খুবই আনন্দিত।

গ্রামের বিভিন্ন বয়সী মানুষের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, রাকিবুল যে বিশ্বকাপে বাংলাদেশ দলের হয়ে খেলছেন, এ খবর টুর্নামেন্টের শুরু থেকেই জানে গ্রামবাসী। বিশেষ করে গ্রামের কিশোররা বেশি খবর রাখে। বিশ্বকাপ শুরু হওয়ার পর থেকেই গ্রামের মানুষ রূপসী বাজারে গিয়ে রাকিবুলের খেলা দেখেছে।

গ্রামে ঢুকতেই দেখা হয় মিজান, এবাদুল, শাহরিয়ার ও মামুন মিয়ার সঙ্গে। তারা চারজনই রূপসী উচ্চ বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণির ছাত্র। গ্রামের ছেলের এমন কৃতিত্বে তারাও বেশ খুশি।

তারা জানায়, রাতে বাড়ির বাইরে যাওয়া নিষেধ হলেও পরিবারের অনুমতি নিয়ে রোববার রাতে রূপসী বাজারে বসেই খেলা দেখেছে। টানা উত্তেজনার অবসান ঘটিয়ে বিশ্বজয়ের শেষ রানটা আসে রাকিবুলের ব্যাট থেকে। এ আনন্দের ঘোর কাটছেই না তাদের। রাতেই গ্রামের মানুষ রাকিবুলের দলের জয়ে আনন্দ মিছিল করেছে।

গ্রামের মানুষের এ আনন্দকে আরো বাড়িয়ে দিতে চান রাকিবুলের বাবা শহীদুল ইসলাম। সোমবার দুপুরে মুঠোফোনে কথা হয় তার সঙ্গে। তিনি বলেন, ছেলে দেশে এলেই গ্রামে আসব। গ্রামের মানুষদের সঙ্গে এ আনন্দ ভাগাভাগি করব।

সূত্র: ডেইলি বাংলাদেশ

Categories
খেলা

জুনিয়র টাইগারদের শাস্তি দেবে আইসিসি!

অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে শিরোপা অর্জন করেছে বাংলাদেশে। বিশ্ব দরবারে এটাই প্রথম বাংলাদেশ ফাইনালে উঠে জয় পেয়েছে। কিন্তু বিপত্তি ঘটে ম্যাচ শেষে মাঠে যুবাদের বিজয় উল্লাসের সময়। দেশের এক খেলোয়াড়ের সঙ্গে বিতর্কে জড়ায় ভারতের ক্রিকেটাররা। যা গড়ায় ধাক্কাধাক্কি পর্যন্ত।

জয় পেয়েই বাংলাদেশ দলের ক্রিকেটাররা তা উদযাপন করার জন্য মাঠে নেমে পড়ে। এ সময় দলের কেউ কেউ ভারতীয় ক্রিকেটারদের সঙ্গে উত্তপ্ত বাক্য বিনিময় করেন। যা ভারতীয় ক্রিকেটাররা মেনে নেয়নি। এরপর তাদের মধ্যে হাতাহাতি হওয়ারও দাবি করা হচ্ছে।

তবে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দলের অধিনায়ক আকবর আলী, ম্যাচ রেফারি গ্রায়েম লাব্রয়ের এবং ভারতীয় দলের টিম ম্যানেজার আনিল প্যাটেল কেউই প্রকৃত ঘটনা সম্পর্কে নিশ্চিত করে কিছু বলতে পারছেন না।

ফুটেজ মতে, ম্যাচ শেষে বাংলাদেশ দলের এক ক্রিকেটার লাফ দিয়ে ভারতের ক্রিকেটারের সামনে দাঁড়িয়ে কিছু একটা বলেন। এরপর শুরু হয় হাতাহাতি। আইসিসি শেষ কয়েক মিনিটের ফুটেজ দেখে ঘটনা কি ঘটেছিল তা দেখবে।

এদিকে ভারতের টিম ম্যানেজার অনিল প্যাটেলের দাবি করেছেন, দোষটা বাংলাদেশ দলের। তাই আইসিসি বাংলাদেশ দলকে শাস্তি দেবে বলে জানান তিনি।

এ বিষয়ে প্যাটেল বলেন, ‘আমরা ঠিক জানি না, কি ঘটেছিলো। আমাদের ক্রিকেটাররা হতভম্ব হয়ে পড়েছিলো। আমরা বুঝতেই পারিনি মাঠে কি হচ্ছে। আইসিসি শেষ কয়েক মিনিটের ফুটেজ দেখবে। ম্যাচ রেফারি আমার কাছে এসেছিলেন। তিনি ঘটনার জন্য দুঃখ প্রকাশ করেছেন।’

তিনি আরো জানান, ‘আইসিসি ব্যাপারটা নিয়ে সিরিয়াস। তারা ফুটেজ দেখে আমাদের বিষয়টি জানাবে বলেছে।

Categories
খেলা

আবেগে অশ্রুশিক্ত খালেদ মাহমুদ সুজন

বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক খালেদ মাহমুদ সুজন। ক্রিকেটের উত্থান থেকে ওতপ্রোতভাব জড়িত তিনি। কখনো কর্তা হিসেবে অথবা কখনো খোদ কোচ হিসেবে।

সুজন এখন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের পরিচালক ও বিসিবির গেম ডেভলপমেন্ট কমিটির চেয়ারম্যান। জাতীয় দল, এইচপি কিংবা যুবারা; সব দলের সঙ্গেই আছেন এই সুজন।

যুব বিশ্বকাপে টাইগারদের সঙ্গে সুজন দক্ষিণ আফ্রিকায় ছিলনে। কাছ থেকে দেখেছেন ১৯ বছরে ছেলেদের বিশ্বজয়ের মুহূর্ত। এই মুহূর্তের পর চোখের পানি ধরে রাখতে পারেননি, যুবারা যখন বিজয়োল্লাসে মেতেছিলেন সুজন তখন কাঁদছিলেন। পাশে থেকে কারো সান্ত্বনাও কাজে আসছিল না।

দক্ষিণ আফ্রিকার পচেফস্ট্রুমে ভারতকে তিন উইকেটে হারিয়ে প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপ জেতে বাংলাদেশ। ভারত আগে ব্যাটিং করে ১৭৮ রানের টার্গেট দেয়। দুর্দন্ত বোলিং করেন অভিষেক দাস, শরীফুল ও সাকিব।

টার্গেটে খেলতে নেমে ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়লেও আকবরের দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে তিন উইকেটে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে লাল সবুজের প্রতিনিধিরা। আকবর ৭৭ বলে ৪৩ রান নিয়ে অপরাজিত থাকেন। অনবদ্য এই ইনিংসের জন্য ম্যাচসেয়ার পুরষ্কার ওঠে তার হাতে।

Categories
খেলা

মেজাজ হারিয়ে বাংলাদেশের পতাকা কেড়ে নেয় ভারতীয় ক্রিকেটার

অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে ভারতকে হারিয়ে ইতিহাস গড়ে বিশ্বকাপের শিরোপা জিতেছে বাংলাদেশের যুবারা। ভারতের দেয়া ১৭৮ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে ডার্ক লুইস পদ্ধতিতে ৪৬ ওভারে নেমে আসা ম্যাচে ৪২.১ ওভারে ১৭০ রান করে ৩ উইকেটের জয় তুলে নেয় টাইগার যুবারা।

এদিকে, শিরোপা হাত ছাড়া হওয়ায় মেজাজ হারিয়ে ফেলে ভারতীয় একজন ক্রিকেটার। প্রতিপক্ষের উদযাপন সহ্য করতে না পেরে ওই ভারতীয় খেলোয়াড় বাংলাদেশের এক খেলোয়াড়ের কাছ থেকে কেড়ে নেন লাল-সবুজের পতাকা।

এমনকি ম্যাচের পরপরই ভারতীয়রা ভদ্রতাসূচক করমর্দনও করেননি। পরে অবশ্য পরিস্থিতি ঠান্ডা হলে আনুষ্ঠানিকতা মেনে করমর্দন করেন তারা।

পুরো ম্যাচ জুড়ে বাংলাদেশি ক্রিকেটারদের আজে-বাজে ভাষায় স্লেজিং করে গেছে ভারতীয় ক্রিকেটাররা। দক্ষিণ আফ্রিকায় দলের সঙ্গে থাকা বিসিবির জুনিয়র নির্বাচক কমিটির সদস্য হাসিবুল হোসেন ফোনে দেশের জনপ্রিয় একটি দৈনিক পত্রিকাকে জানিয়েছেন, ‘ওরা পুরো ম্যাচজুড়েই প্রচুর স্লেজিং করেছে। আমরা জেতার পর তা মাত্রা ছাড়িয়ে যায়। আমাদের ক্রিকেটাররা যখন উৎসব করতে শুরু করল, তখনই ওরা এসে মা-বাপ তুলে গালিগালাজ শুরু করে। কত আর সহ্য করা যায়! ছেলেরা সহ্য করতে না পেরে প্রতিবাদ করতে যায়। এতেই শুরু হয় ধাক্কাধাক্কি।’

ম্যাচের পরপরই ভারতীয়রা ভদ্রতাসূচক করমর্দনও করেননি। তারা রীতিমতো মা-বাপ তুলে গালাগাল করেছিল বলে জানা গেছে। পরে অবশ্য পরিস্থিতি ঠান্ডা হলে আনুষ্ঠানিকতা মেনে করমর্দন করেন দুই দলের ক্রিকেটাররা। এই ঘটনায় বাংলাদেশ অধিনায়ক আকবর আলী দুঃখ প্রকাশ করলেও ভারতীয় অধিনায়ক কোনো দুঃখপ্রকাশ করেনি। তারা বাংলাদেশের ওপর দোষ চাপিয়েই বসে আছেন। এই ঘটনা নিয়ে তদন্তে নেমেছে আইসিসি। আজ বিকালেই এ বিষয়ে রিপোর্ট দেওয়ার কথা রয়েছে।

Categories
খেলা

৫ কারণে এগিয়ে নাছির : ১০ কারণে পিছিয়ে

আগামী ১৬ ফেব্রুয়ারি চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন (চসিক) নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করবে নির্বাচন কমিশন। চসিক নির্বাচনের ক্ষণ যতই ঘনিয়ে আসছে ততই ছড়াচ্ছে নানান জল্পনা-কল্পনার ডালপালা। ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ থেকে বর্তমান মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন আবার মনোনয়ন পাচ্ছেন, নাকি তার বদলে নতুন কোন চমক আসছে— এই প্রশ্ন এখন সবখানে। গত নির্বাচনে হেভিওয়েট এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরীর সঙ্গে পাল্লা দিয়ে আওয়ামী লীগের সমর্থন আদায় করে নেওয়া আ জ ম নাছির এবারও আলোচনায় এগিয়ে আছেন। তবে অনেকে আবার মনে করেন বেশ কিছু কারণে পিছিয়ে যেতেও পারেন নাছির। সেক্ষেত্রে ঢাকা দক্ষিণ সিটিতে তাপসের মত দৃশ্যপটে হাজির হতে পারেন মহিউদ্দিন চৌধুরীর পুত্র শিক্ষা উপমন্ত্রী নওফেল। এছাড়া আলোচনায় আছে নগর আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি খোরশেদ আলম সুজন, কোষাধ্যক্ষ আব্দুচ ছালাম, চট্টগ্রাম চেম্বার অব কমার্সের সভাপতি মাহবুবুর রহমানের নামও। তবে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে নজর রাখা রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা বলছেন মনোনয়ন দৌড়ে সব সুবিধাজনক অবস্থানে থাকলেও বেশ কিছু বিষয়ে মনোনয়নের দৌড়ে পিছিয়েও যেতে পারেন নাছির।

পাঁচ কারণে এগিয়ে থাকবেন নাছির
মোটা দাগে পাঁচ কারণে আগামী চসিক নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পাওয়ার ক্ষেত্রে আ জ ম নাছিরকে এগিয়ে রাখছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা। এগুলো হচ্ছে—

১. হেভিওয়েট প্রার্থী নেই
গতবার এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরীর মত হেভিওয়েট নেতাকে পেছনে ফেলে মনোনয়ন পাওয়া নাছিরকে এবার মনোনয়ন দৌড়ে সেরকম কোন হেভিওয়েট প্রার্থীকে মোকাবেলা করতে হচ্ছে না। আ জ ম নাছিরের এগিয়ে থাকার সবচেয়ে বড় কারণ এটিই।
২. ওয়ার্ডে প্রভাব
নগরের প্রতিটি ওয়ার্ডে কর্মী-সমর্থক রয়েছে নাছিরের, নওফেল ছাড়া তুলনামূলকভাবে সম্ভাব্য অন্য প্রার্থীদের তা নেই।
৩. নিজস্ব বলয়
মূল সংগঠন ও অঙ্গ সংগঠনগুলোতে তার নিজস্ব বলয় রয়েছে, যা বাকি প্রতিদ্বন্দ্বীদের নেই।
৪. ওপরমহলে যোগাযোগ সুবিধা
বর্তমান মেয়র হিসেবে প্রশাসন ও সরকারের সব পর্যায়ে নিয়মিত যোগাযোগ থাকার সুবিধা তাকে বাকিদের চেয়ে এগিয়ে রাখবে।
৫. নিশ্চুপ নওফেলে নির্ভার
নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতার বিষয়ে মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল সরাসরি আগ্রহ না দেখানোয় অনেকটা নির্ভার থাকতে পারছেন তিনি।

যেসব কারণে পিছিয়ে পড়তে পারেন নাছির
তবে শক্ত প্রতিদ্বন্দ্বী না থাকলেও মনোনয়ন দৌড়ে নাছিরের পিছিয়ে পড়ারও যথেষ্ট কারণ রয়েছে বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা। মোটা দাগে এরকম ১০টি কারণের কথা বলছেন আওয়ামী লীগের দল ও সরকারের একাধিক দায়িত্বশীল সূত্র। তাদের মতে—

১. এক ব্যক্তি এক পদ
একই ব্যক্তিকে দল ও সরকারের গুরুত্বপূর্ণ দুটি পদে না রাখার বিষয়ে আওয়ামী লীগের মানসিকতা আ জ ম নাছিরের মনোনয়ন পাওয়ার ক্ষেত্রে বড় একটি বাধা। সেক্ষেত্রে সংগঠন শক্তিশালী করার জন্য নাছিরকে নগর আওয়ামী লীগের শীর্ষ পদে এনে মেয়র পদে নতুন কাউকে দায়িত্ব দেওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

২. নওফেলে আগ্রহ
নওফেলকে নগরের দায়িত্ব দেওয়ার বিষয়ে সরকারের উচ্চপর্যায়ের আগ্রহের বিষয়ে গুঞ্জন এই সম্ভাবনার পালে বাড়তি হাওয়া দিচ্ছে।

৩. উত্তর ঢাকার হাওয়া
উত্তর ঢাকা সিটি কর্পোরেশনের মত চট্টগ্রামেও ব্যবসায়ীদের কাউকে আনার সম্ভাবনার কথাও উড়িয়ে দেওয়া যাচ্ছে না। চট্টগ্রামেও মেয়র পদে প্রার্থী হতে ব্যবসায়ী নেতাদের দৌড়ঝাপ শুরু হয়েছে এর মধ্যে। নগরের সাংসদদের কেউ কেউ এমন ব্যবসায়ীদের সমর্থনে মাঠেও নেমেছেন।

সরকার। নিজের নির্বাচনী প্রধান অঙ্গীকারের বিষয়ে কাজ করার ক্ষমতা হারানোকে মেয়রের একটি বড় ব্যর্থতা বলেই মনে করছেন চট্টগ্রামের ভোটাররা।

৫. দলে দূরত্ব ও স্নায়ু দ্বন্দ্ব
নগর আওয়ামী লীগের নেতাদের সঙ্গে মানসিক দূরত্ব ও স্নায়ু দ্বন্দ্ব এবং সিনিয়র নেতাদের মূল্যায়ন না করার অভিযোগও করেছেন কেউ কেউ। দীর্ঘদিন নগর আওয়ামী লীগের নেতৃত্ব দেওয়া এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরীর সাথে আ জ ম নাছিরের বিরোধ বেশ আলোচিত ছিল চট্টগ্রামের রাজনীতিতে। মহিউদ্দিন চৌধুরীর মৃত্যুর পর তার অনুসারীরা কোণঠাসা হয়ে পড়ে। এ সময় মহিউদ্দিন চৌধুরীর অনুসারীদের সাথে স্নায়ু-দ্বন্দ্ব তৈরি হয় মেয়র নাছিরের। সর্বশেষ একটি অনুষ্ঠানে মহিউদ্দিন-পত্নী হাসিনা মহিউদ্দিনকে মঞ্চ থেকে অশোভনভাবে নামিয়ে দেওয়ার বিতর্ক সেই স্নায়ুযুদ্ধকে অনেকটা প্রকাশ্য রূপ দিয়েছে।

৬. সৌন্দর্যবর্ধনের বাণিজ্য
‘সৌন্দর্যবর্ধন প্রকল্পের’ নামে গুরুত্বপূর্ণ সড়কের ফুটপাত দখল করে অপরিকল্পিত স্থাপনা নির্মাণের অভিযোগ ছিল ব্যাপকভাবে। নগরজুড়ে এ নিয়ে নাগরিকদের সীমাহীন বিরক্তি ও অসন্তোষ।

৭. বিশৃঙ্খল সিটি করপোরেশন
গত ৫ বছরে সিটি করপোরেশনে বিভিন্ন প্রকল্পে অনিয়মের অভিযোগ এবং দুদকের নজরদারি, কর্মকর্তা-কর্মচারীদের পদোন্নতিতে অনিয়মের অভিযোগও আলোচনায় আছে বেশ শক্তভাবে। মনোনয়ন দেওয়ার ক্ষেত্রে এসব বিষয়ও বিবেচনায় নিতে পারেন কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ এমন আশংকাও উড়িয়ে দিচ্ছেন না বিশ্লেষকরা।

৮. দায়িত্বের ভারে মূল দায়িত্বে অবহেলা
মেয়র ও দলের শীর্ষ পদে থেকেও অন্তত অর্ধশতাধিক সংগঠনের নেতৃত্ব দিতে গিয়ে এবং চট্টগ্রাম বন্দরসহ ব্যক্তিগত কয়েকটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে জড়িত থাকায় সিটি করপোরেশনের কাজে স্থবিরতা নেমে এসেছে বলে মনে করেন অনেকেই। এই দীর্ঘ সময়ে চট্টগ্রাম জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক, চট্টগ্রাম কো-অপারেটিভ হাউজিং সোসাইটির সভাপতি, বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সহ-সভাপতিসহ অনেকগুলো প্রতিষ্ঠান ও সংগঠনের দায়িত্বেও ছিলেন মেয়র নাছির। এক সাথে এতসব দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে সিটি কর্পোরেশন মেয়রের মূল দায়িত্বে বলার মত সফলতা দেখাতে পারেননি তিনি— এমনটাই মনে করছেন ভোটাররা।

৯. মেয়াদজুড়ে অনাস্থা
মেয়াদের পুরো ৫ বছরেই ‘অতিরিক্ত সচিব’ পদমর্যাদায় মেয়রের দায়িত্ব পালন করেছেন চট্টগ্রামের সিটি মেয়র নাছির উদ্দিন। চট্টগ্রামের চেয়ে কম গুরুত্বপূর্ণ সিটির মেয়রদেরকেও প্রতিমন্ত্রী-উপমন্ত্রীর মর্যাদা দেওয়া হলেও আ জ ম নাছিরের মুকুট ছিল শূন্য। ঢাকার পরেই গুরুত্ব বিবেচনায় চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের অবস্থান হলেও মেয়র আ জ ম নাছিরউদ্দিনকে ধারাবাহিকভাবে পদমর্যাদার বাইরে রেখে দেওয়ার বিষয়টিতে বিস্ময় প্রকাশ করেছেন অনেকে। রাজনৈতিক সূত্রগুলো বলছে, প্রধানমন্ত্রীর সুদৃষ্টি তার ওপর নেই। এ কারণে গত অন্তত পাঁচ বছরে চট্টগ্রামভিত্তিক উল্লেখযোগ্য উন্নয়ন প্রকল্পগুলোর প্রায় সবই সিটি কর্পোরেশনকে না দিয়ে চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষকে দেওয়া হয়েছে। এই বিষয়টিকে বড় করে দেখছেন তারা।

১০. সড়কের দুরবস্থা
দায়িত্ব পালনকালে চট্টগ্রাম নগরীর অনেক গুরুত্বপূর্ণ সড়কের নির্মাণকাজে দীর্ঘসূত্রতা ও এসব কাজ শেষ করতে না পারার ব্যর্থতাও ডোবাতে পারে মেয়র নাছিরকে। চট্টগ্রামের অন্যতম প্রধান দুটি সড়ক পোর্ট কানেকটিং রোড ও আগ্রাবাদ এক্সেস রোড। ২০১৭ সালের শেষের দিকে এই দুটি সড়কের কাজ শুরু করে চসিক। ২০১৯ সালের মে মাসে কাজ শেষ হওয়ার কথা থাকলেও এখন পর্যন্ত এই দুই সড়কের বেশিরভাগ কাজই অসম্পন্ন। নির্বাচনের আগে এই দুটি সড়কের নির্মাণ কাজ শেষ না হওয়ার সম্ভাবনাই বেশি। একই দুর্ভোগ পোহাতে হয়েছে আরাকান সড়কের বহদ্দারহাট থেকে মোহরা অংশেও।

প্রায় সাড়ে তিন বছর টানা ভোগান্তির পর গত বছরের জুলাই থেকে এই সড়কের সংস্কার কাজ শুরু করে চসিক। তবে সেই সড়কের সংস্কার কাজ শেষ হয়নি এখনো। এসব নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছিলেন খোদ প্রধানমন্ত্রী নিজেই। ২০১৭ সালের ১২ মার্চ চট্টগ্রাম সফরকালে প্রধানমন্ত্রী শুধু চট্টগ্রাম বিমানবন্দর সড়কের অবস্থা দেখে প্রচণ্ড ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেছিলেন, ‘ভবিষ্যতে চট্টগ্রামের মতো গুরুত্বপূর্ণ নগরীর এ দুরবস্থা আমি দেখতে চাই না। কার গাফিলতিতে এ দুরবস্থা তা জানতে চাই। আপনারা ডিপিপি প্রণয়ন করুন। একনেকে পাঠান, একনেকে তো আমি সভাপতিত্ব করি, আমি অনুমোদন দেব। কিন্তু কাজ হবে না তা সহ্য করব না।’ এই বিষয়টিও শেষ পর্যন্ত মেয়র নাছিরকে অস্বস্তিতে রাখবে বলে মনে করছেন অনেকেই। সূত্র : সিপি

Categories
খেলা

প্রথম বিশ্বকাপ জিতল বাংলাদেশ

আইসিসির কোনো ইভেন্টে প্রথমবারের মত শিরোপা জিতল বাংলাদেশ । অনূধর্ধ-১৯ দলের হাত ধরে প্রথম বারের মত শিরোপার স্বাদ পেল বাংলাদেশ ।

অধিনায়ক আকবর আলীর দায়িত্বশীল ব্যাটে অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে প্রথম শিরোপা জিতেছে বাংলাদেশ। টুর্নামেন্টের হট ফেভারিট চারবারের চ্যাম্পিয়ন ভারতকে তিন উইকেটে হারিয়ে বিশ্বকাপ জয়ের ইতিহাস গড়ল বাংলাদেশ।

রোববার দক্ষিণ আফ্রিকায় অনুষ্ঠিত যুব বিশ্বকাপের ফাইনালে প্রথমে ব্যাট করে ১৭৭ রানে অলআউট হয় ভারত। টার্গেট তাড়া করতে নেমে ২৩ বল হাতে রেখে জয় নিশ্চিত করে আকবর আলীর নেতৃত্বাধীন বাংলাদেশ যুব দল।

খেলার মাঝে বৃষ্টি শুরু হওয়ায় খেলা নির্ধারিত হয় ৪৬ ওভারে।

Categories
খেলা

ইতিহাস গড়ে যুব বিশ্বকাপের ফাইনালে বাংলাদেশ

অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের দ্বিতীয় সেমিফাইনালে মাহমুদুল হাসান জয়ের অনবদ্য সেঞ্চুরিতে নিউজিল্যান্ডকে বিশাল ব্যবধানে হারিয়ে ফাইনালে উঠেছে বাংলাদেশ।

বৃহস্পতিবার পচেফস্ট্রমে নিউজিল্যান্ডের দেয়া ২১২ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে ৩৫ বল হাতে রেখেই জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় আকবর আলীর নেতৃত্বাধীন বাংলাদেশের যুবারা।

মাহমুদুল হাসান জয় ১২৭ বলে ১০০ রান করেন। তার ইনিংসটি ছিল ১৩টি চারে সাজানো। এছাড়া তাওহীদ হৃদয় ও শাহাদত হোসাইন দুজনই ব্যক্তিগত ৪০ রানের দুটো ঝলমলে ইনিংস উপহার দিয়ে জয়ে ভূমিকা রাখেন। আগামী ৯ ফেব্রুয়ারি ভারতের বিপক্ষে ফাইনাল খেলবে বাংলাদেশ।

প্রথমে ব্যাট করে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৮ উইকেটে ২১১ রান সংগ্রহ করে কিউই যুবারা। এ ম্যাচে নিউজিল্যান্ডকে ৬ উইকেটে হারিয়ে ইতিহাস গড়ল বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দল। প্রথমবারের মতো যুব বিশ্বকাপের ফাইনালের টিকিট পেলেন তারা। এ নিয়ে দ্বিতীয়বার সেমিতে খেলছেন লাল-সবুজ যুবারা। এর আগে ঘরের মাঠে ২০১৬ সালে মেহেদী হাসান মিরাজের নেতৃত্বে প্রথমবার অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের শেষ চারে খেলেন তারা।

Categories
খেলা

তাপসের আসনে সাকিব!

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের একবছরের মাথায় পদত্যাগ ও মৃত্যুজনিত কারণে শূন্য হয়েছে পাঁচটি আসন। শূন্য হওয়া সংসদীয় আসনগুলোতে মার্চের তৃতীয় সপ্তাহে উপনির্বাচন হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। আসন্ন এই উপনির্বাচনের জন্য মনোনয়ন প্রত্যাশীরা ইতোমধ্যেই দলের ওপর মহলে জোড় তদবির শুরু করেছেন।

শূন্য হওয়া আসনগুলো হলো— যশোর-৬ (কেশবপুর), বগুড়া-১ (সারিয়াকান্দি-সোনাতলা), বাগেরহাট-৪, গাইবান্ধা-৩ ও ঢাকা-১০। এর মধ্যে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে অংশ নেওয়ার জন্য শেখ ফজলে নূর তাপস ঢাকা ১০ আসনের সংসদ সদস্য পদ থেকে পদত্যাগ করেন। বাকি চারটি আসনই শূন্য হয় মৃত্যুজনিত কারণে।

শূন্য হওয়া আসনগুলোর সংসদ সদস্যরা সবাই ছিলেন আওয়ামী লীগের। এসব আসনে যোগ্য ও দলীয় রাজনীতিতে পরীক্ষিতদেরই মনোনয়ন দেবে দলটি। শূন্য আসনে ৯০ দিনের মধ্যে উপনির্বাচনের বিধান থাকলেও এই পাঁচটি আসনের উপনির্বাচন নিয়ে নির্বাচন কমিশন এখন পর্যন্ত জারি করেনি কোনো নির্দেশনা।

এ দিকে শোনা যাচ্ছে, ঢাকা দক্ষিণ সিটির নবনির্বাচিত মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপসের ছেড়ে দেওয়া আসনে আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়ন পেতে পারেন বাংলাদেশ দলের তারকা ক্রিকেটার সাকিব আল হাসান। তবে সাকিব ছাড়াও এই আসনে বেশ কয়েকজন হেভিওয়েট ব্যক্তির নাম আলোচনায় রয়েছে।

ঢাকা-১০ আসনের উপনির্বাচনে সাকিব আল হাসানের পাশাপাশি ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআইর সাবেক সভাপতি শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন, আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক, যুবলীগের চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশ, ফজলে নূর তাপসের স্ত্রী আফরিন তাপস, বঙ্গবন্ধুর ছোট কন্যা শেখ রেহানার ছেলে রাদওয়ান মুজিব সিদ্দিক ববির নাম আলোচনায় আনছেন দলটির নেতাকর্মীরা। আওয়ামী লীগ সূত্র জানিয়েছে, এ আসনে প্রার্থী মনোনয়নে চমক থাকবে। এ হিসেবে রাদওয়ান মুজিব সিদ্দিক ববি বা সাকিব আল হাসানকে দেখা যেতে পারে।

Categories
খেলা

আজ সাকিবের নিষেধাজ্ঞার ১০০ তম দিন

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সাকিবের ১০০ রানের ইনিংস ১৪টি। টেস্টে পাঁচটি, ওয়ানডে নয়টি।
বাংলাদেশের জেতা ওয়ানডে ম্যাচে সাকিবের ১০০ রানের ইনিংস সাতটি, টেস্টে দুটি।
বাংলাদেশের অধিনায়ক হিসেবে সাকিবের ওয়ানডে ম্যাচে ১০০ রানের ইনিংস তিনটি, টেস্টে একটি।


বাংলাদেশের অধিনায়ক হিসেবে টেস্টে সাকিবের সর্বোচ্চ ইনিংস ১০০।
টেস্ট ম্যাচের চতুর্থ ইনিংসে সাকিবের সর্বোচ্চ ইনিংস ১০০।


টেস্টে শ্রীলংকার গল ও দক্ষিণ আফ্রিকার সুপারস্পোর্টস পার্কে সাকিবের ব্যাটিং স্ট্রাইক রেট ১০০। ২০০৮ সালে আন্তর্জাতিক টি২০ ক্রিকেটে সাকিবের ব্যাটিং স্ট্রাইক রেট ছিল ১০০।