আবরার হত্যার বিচারের দাবিতে চাঁদপুর জেলা ছাত্রদলের বিক্ষোভ

বিরোধী চুক্তির প্রতিবাদ করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে স্ট্যাটাস দেওয়ায় বুয়েট ছাত্র আবরারকে ছাত্রলীগ সন্ত্রাসীরা পিটিয়ে নির্মমভাবে হত্যা করেছে অভিযোগ করে এ ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে চাঁদপুর জেলা ছাত্রদলের বিক্ষোভ মিছিল ।

আজ বুধবার (৯ অক্টোবর) চাঁদপুর জেলা ছাত্রদলের সভাপতি ইমান হোসেন গাজীর সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক ইসমাঈল পাটোয়ারীর সঞ্চালনায় জেলা বিএনপির পার্টি অফিসে এক বিক্ষোভ সমাবেশ ও মিছিল অনুষ্ঠিত হয় ।

এ সময় জেলা ছাত্রদলের সভাপতি ইমান হোসেন বলেন, ছাত্রলীগ এখন গণতন্ত্রহীন এই দেশে রক্ষীবাহিনীর ভূমিকায় অবর্তীণ হয়েছে। তারা পাক বাহিনীর কায়দায় নিজ দেশের মানুষের উপর নির্মম অত্যাচারের খেলায় মেতে উঠেছে। এই ছাত্রলীগকে একটি সন্ত্রাসী সংগঠন হিসেবে ঘোষনা করা উচিত। তিনি আরও বলেন, পুলিশ-বিজেপি আমাদের দেশের মানুষের টাকার ট্যাক্সে বেতন পায়।কিন্তু তারা মানুষের নিরাপত্তা না দিয়ে নিরাপত্তা দিচ্ছে অবৈধ সরকারকে।তাদের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে বর্ডারে শান্তি-শৃঙ্খলা বজায় রাখার জন্য কিন্তু ভারত প্রতিদিন বাংলাদেশের নাগরিকদের হত্যা করছে,বিজেপি নিশ্চুপ দর্শকের ভুমিকা নিচ্ছে ।

এদেশে একজন আবরারকে হত্যার মধ্যে দিয়ে শত শত আবরারের বুকে আগুন ধরিয়ে দেয়া হয়েছে।এই সরকারের আমলে আবরারের হত্যার বিচার না হলে বিএনপি ক্ষমতায় আসলে অবশ্যই শহীদ আবরার সহ দেশের জন্য যারা জীবন দিয়েছেন তাদের হত্যার বিচার করা হবে ।

অনুষ্ঠানস্থলে পুলিশ বাধা দিলে চাঁদপুর জেলা ছাত্রদলের সাবেক আহবায়ক এবং জেলা যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক ফয়সাল আহমেদ বাহার বলেন, “আমাদের বর্ডারে পাখির মত মানুষ হত্যা করে ভারত কোনভাবেই আমাদের বন্ধু হতে পারেনা,স্বাধীনতার পর থেকে আজ অবধি আমাদের সকল প্রাপ্য অধিকার থেকে বঞ্চিত হয়েছি , কিন্তু আমরা কেউ এ ব্যাপারে কথা বলতে পারব না এটা কেমন কথা?কথা বললেই আবরারের মত জীবন দিতে হবে,এটা কোন স্বাধীন রাষ্ট্রের চরিত্র হতে পারে না ।

তিনি আরো বলেন, “আর আজকে আমাদের একটি শান্তিপূর্ণ কর্মসূচিতে পুলিশ এমন বাধা দিচ্ছে,মনে হচ্ছে যেন আমরাই আবরারের খুনী।আসলে খুনীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা না নিয়ে হত্যার প্রতিবাদকারীদের বাধা দেয়ার মানেই হচ্ছে এই মিড নাইট সরকার আবরারের খুনীদের পক্ষ নিয়েছে।আমরা এর তীব্র নিন্দা জানাই এবং অনতিবিলম্বে আবরারের খুনীদের গ্রেফতার করে ফাঁসী কার্যকর দেখতে চাই ।

এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন জেলা যুবদলের সহ সভাপতি মানিকুর রহমান মানিক,জেলা ছাত্রদলের সাংগঠনিক সম্পাদক সোহাগ,যুগ্ম সাঃ সম্পাদক শাকিল,সদর উপজেলা সভাপতি মো : হাবিব , সাধারণ সম্পাদক জোনায়েত সহ ছাত্রদল, যুবদলের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ।

TopUP