বন্যার পানিতে মৎস্যকন্যার ফটোশুট

ছবি : সংগৃহীত

টানা এক সপ্তাহের বন্যায় বিহারের পরিস্থিতি ক্রমেই খারাপ হচ্ছে। ২০টিরও বেশি জেলা পানিবন্দী। রাজধানী পাটনার অবস্থাও খারাপ। মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৪০।

পাটনার রাস্তায় বুক সমান পানি, ভাসছে হাসপাতালের বেড। বন্ধ করে দেয়া হয়েছে স্কুল-কলেজ। জাতীয় বিপর্যয় প্রতিরক্ষা বাহিনীর তিনটি দল উদ্ধার কাজ চালাচ্ছে। এই পরিস্থিতিতে পানির মধ্যে দাঁড়িয়ে ফটোশুট করলেন এক তরুণী। ফটোশুটের ছবি ইতিমধ্যেই ভাইরাল সোশ্যাল মিডিয়ায়। শুরু হয়েছে সমালোচনা।

সম্প্রতি পাটনার ন্যাশনাল ইন্সটিটিউট অব ফ্যাশন টেকনোলজির ছাত্রী অদিতি সিং এই ফটোশুট করেন। ছবিগুলো তোলেন সৌরভ অনুরাজ নামের এক যুবক।

তিনিই ছবিগুলো তার ইনস্টাগ্রাম প্রোফাইলে দেন। সেখানে দেখা যাচ্ছে পাটনার রাস্তায় জলে দাঁড়িয়ে লাল রঙের একটি গাউন পরে ছবি তুলেছেন অদিতি। বেশ কিছু পোজে তাকে ছবি তুলতে দেখা যায়।

এই ছবিগুলোর ক্যাপশন দেয়া হয় ‘মারমেড ইন ডিজাস্টার’ অর্থাৎ ‘বিপর্যয়ের মধ্যে মৎস্যকন্যা’। তবে এ ছবি প্রকাশের সঙ্গে সবার জন্য একটি মেসেজও লিখেন সৌরভ। তিনি ফেসবুকে লিখেন, ‘ফটোশুট কেবল পাটনার বর্তমান পরিস্থিতিকে তুলে ধরার জন্য করা হয়েছে। কেউ এটাকে ভুলভাবে নেবেন না।’

মুহূর্তে ভাইরাল হয়ে যায় এই ছবি। শুরু হয় সমালোচনা। কেউ বলেন, ‘যখন গোটা রাজ্যের অবস্থা খারাপ, তখন আপনারা ছবি তুলছেন। এর বদলে তো মানুষকে সাহায্য করলে কাজে দিত।’

কেউ আবার বলেন, ‘অদিতির পোজ ও মুখ দেখে তো মনে হচ্ছে না বন্যার পরিস্থিতি দেখানোর জন্য এই ছবি তোলা হয়েছে। পরিষ্কার বোঝা যাচ্ছে নিজেদের কাজেই এই ছবি তোলা হয়েছে।’

আবার অনেকে বলেন, ‘বিপর্যয়কে এভাবে দেখানোর কোনো মানে হয় না। এতে কারও উপকার হয় না।’

সবাই যে অদিতি ও সৌরভের বিরুদ্ধে কথা বলেছেন তা নয়। কেউ কেউ এই ছবিগুলোকে বেশ সুন্দর বলেও বর্ণনা করেছেন।

সূত্র: এনডিটিভি

TopUP